১৭০-২০০ গতিবেগে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় আমফান, রইলো LIVE গতিপথ

দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গপোসাগরের বুকে নিম্নচাপে একটি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। শক্তি সঞ্চয় করে এই ঘূর্ণিঝড়ের অভিমুখ এখন উত্তর পশ্চিম দিকে। তবে আবহাওয়া বিজ্ঞানীদের মতে ঝড়ের অভিমূখ উত্তর পূর্ব দিকে বাঁক নিয়ে অন্ধ্রপ্রদেশ, উত্তর ওড়িশা, পশ্চিম বাংলার বুকে প্রবল গতিতে আছড়ে পড়তে পারে। শক্তি সঞ্চয় করে ধীরে ধীরে এই ঘূর্ণিঝড় তীব্র আকার নেবে ১৯ ও ২০ তারিখে।

উপগ্ৰহ চিত্র বলছে আগামী সোমবার মঙ্গলবার কলকাতা, দুই ২৪ পরগণা, হুগলি, হাওড়া, দুই মেদিনীপুরের মতো জেলাগুলিতে প্রবল ঝড়ের সাথে ভারী, অতি ভারীমাত্রায় বৃষ্টি হতে পারে।

কোন তারিখে কোন অঞ্চলে কত গতিবেগে এই ঝড় কেমন ভয়ঙ্কর রূপ নিয়ে আছড়ে পড়বে তার একটি তালিকা ইতিমধ্যেই দিয়েছে কলকাতা আবহাওয়া দপ্তর।

১৬ তারিখে ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার গতিবেগে এই ঘূর্ণিঝড় বইতে শুরু করবে।

১৬ তারিখে বিকেলের দিকে ৭৫-৮৫ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে শক্তি সঞ্চয় করে এই ঝড় ঘূর্ণিঝড়ের আকার নেবে।

১৭ তারিখে রবিবার তীব্র ঝড়ের আকার নিয়ে আছড়ে পড়বে উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে। গতিবেগ থাকবে ৯০-১০০ কিলোমিটার।

১৮ তারিখে এই ঝড় ১২০-১৩০ থেকে ১৪৫ কিলোমিটার গতিবেগে আছড়ে পড়তে পারে বলে মনে করছেন আবহবিদরা।

১৯ তারিখে আমফান সর্বোচ্চ ১৫৫ থেকে ২০০ কিলোমিটার গতিবেগে পৌঁছাতে পারে।

২০ তারিখেও বুধবারে ১৬০-১৭০ থেকে ১৯০ কিলোমিটার গতিবেগ থাকবে এই ঘূর্ণিঝড়ের। তবে রাতের পর এই ঝড়ের প্রকোপ কমতে থাকবে।

২১ তারিখে ঝড়ের গতিবেগ কমে আসবে ১১০-১২০ থেকে ১৩৫ কিলোমিটার গতিবেগে।

সরকারিভাবে ইতিমধ্যেই জরুরি বার্তা ঘোষণা করা হয়েছে এই সব এলাকায় বসবাসকারী অধিবাসীদের জন্য।

শেয়ার করুন