স্বামী সেজে অন্ধকারে গৃহবধূর সর্বনাশ করেন মাসুদ!

স্বামী সেজে অন্ধকারে গৃহবধূর সর্বনাশ করেন মাসুদ!

স্বামী সেজে ঘুমিয়ে থাকা এক গৃহবধূর সর্বনাশ করেছেন মাসুদ মিয়া (৪০) নামে এক ব্যক্তি। অন্ধকারে সেই গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণ করেন মাসুদ। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের ফরিদপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নির্যাতিত গৃহবধূ কুলিয়ারচর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগ পেয়ে মাসুদ মিয়াকে গ্রেফতার করে কোর্টে সোপর্দ করেছে পুলিশ।

অভিযুক্ত মাসুদ মিয়া কুলিয়ারচর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের নাপিতেরচর গ্রামের মো. ফজলু মিয়ার ছেলে।মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনার শিকার হন ওই গৃহবধূ। তিনি তার বসতঘরে মেয়ের সঙ্গে একটি চৌকিতে ঘুমাচ্ছিলেন। আর তার স্বামী ঘরের অন্য আরেকটি চৌকিতে ছেলের সঙ্গে ঘুমাচ্ছিলেন।

এ সময় টিনের ঘরের বেড়ার ফাঁকা দিয়ে বাইরে থেকে দরজা খুলে ঘরে প্রবেশ করে মাসুদ। সে চুপিচুপি ওই গৃহবধূর বিছানায় গিয়ে স্বামী বেশে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করে। ওই সময় ওই গৃহবধূ তন্দ্রাচ্ছন্ন থাকায় মাসুদকে স্বামী মনে করে কোনো বাধা দেননি। এ ঘটনা শেষে মাসুদ যখন দরজা খুলে বাইরে যেতে চায়, তখন গৃহবধূ লাইট জ্বালিয়ে দেখতে পান লোকটি তার স্বামী নয়- প্রতিবেশী মাসুদ। এ সময় গৃহবধূর চিৎকার শুনে স্বামী-সন্তানরা এগিয়ে এলে মাসুদ দৌড়ে পালিয়ে যায়।

কুলিয়ারচর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান বলেন, লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে আসামিকে গ্রেফতার করে কিশোরগঞ্জের কোর্টে পাঠানো হয়। আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

শেয়ার করুন