স্বর্ণের প’তনেও শক্ত অবস্থানে রুপা

বিশ্ববাজারে দাম ওঠানামায় স্বর্ণের অস্থিরতা দেখালেও বেশ শক্ত অবস্থানেই রয়েছে রুপা। সোমবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি আউন্স স্বর্ণ বিক্রি হয় ১৯২৬ দশকমিক ৪৯ ডলারে; যা আগের কার্যবিবসের চেয়ে ৩ দশমিক ১৫ ডলার কম। তবে, কদর ধরে রেখেই বিনিয়োগকারীদের হাতবদল হয়েছে রুপা। আগের কার্যদিবসের চেয়ে ০ দশমিক ১৬ ডলার বেড়ে প্রতি আউন্স রুপার দাম দাঁড়ায় ২৫ দশমিক ৩১ ডলারে।

ওঠানামায় অস্থির স্বর্ণের দৈনিক হাতবদলের পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে, গত কয়েক দিনে যেমন বড় উত্থানের পর ছোট পতনের মুখে পড়েছে স্বর্ণের দাম, তেমনি আবার বড় পতনের আগে একটু একটু করে উত্থান হয়েছে দামের।

এই পতনের মুখে পড়ার আগে গেল ৯ অক্টোবর একদিনেই মূল্যবান এই ধাতুর দাম বাড়ে ৩৪ দশমিক ৫২ ডলার। ওই দিন প্রতি আউন্স সোনার দাম চড়ে দাঁড়ায় ১৯২৯ দশমিক ৬৪ ডলারে। এর আগের দিনও (৮ অক্টোবর) বাজারে বিনিয়োগকারীদের চোখ ছিল আভিজাত্যের প্রতীক স্বর্ণের দিকে। ঊর্ধমুখী প্রবণতায় এদিন দাম বাড়ে ৭ দশমিক ৬৯ ডলার, দাম উঠে ১৮৯৫ দশমিক ১২ ডলারে। ৭ অক্টোবরও দাম বেড়েছে স্বর্ণের। এদিন ১৮৭৮ দশমিক ৪০ ডলার থেকে উঠে যায় ১৮৮৭ দশমিক ৭৩ ডলারে। তবে, এর আগের দিন অর্থাৎ ৬ অক্টোবর বড় ধরনের পতনের মুখে বিনিয়োগের এই নিরাপদ মাধ্যমটি। এদিন ১৯১৩ দশমিক ১৩ ডলার থেকে পড়তে পড়তে ১৮৭৮ দশমিক ৪০ ডলারে ঠেকে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম।

সোনার দাম ওঠানামায় অস্থির থাকলেও মোটামুটি উত্থানের পথেই রয়েছে রুপা। ৯ অক্টোবরও এক আউন্স রুপার দাম বেড়েছে ১ দশমিক ২৭ ডলার। ৮ অক্টোবর দামের ঊর্ধমুখী প্রবণতা ধরে রেখেছে ধাতুটি। এর আগে ৬ অক্টোবর প্রতি আউন্স রুপার সবশেষ দাম ২৩ দশমিক ১৮ ডলার থাকলেও পরের দিন বেশখানিক উঠে ৭ অক্টোবর দাঁড়ায় ২৩ দশমিক ৮১ ডলারে।

আন্তর্জাতিক বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, স্বর্ণের দামের এই অস্থিতিশীল অবস্থার জন্য করোনাভাইরাসের টিকা বাজারে আসার অনিশ্চয়তা যেমন দায়ী তেমনি বড় প্রভাবক হিসেবে কাজ করছে শীর্ষ অর্থনীতির দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: