সে আগের সপ্তাহে বুর্জ খলিফা হোটেলে ছিল, সাবেক স্ত্রীকে নিয়ে বিস্ফোরক সিদ্দিক

অনুমতি ছাড়া ছেলে আরশ রহমানের খাতনা করায় ছোট পর্দার অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমানের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন সাবেক স্ত্রী মডেল মারিয়া মিম।

শনিবার দিবাগত রাতে তিনি গুলশান থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। এদিকে এই সাধারণ ডায়েরির বিষয়ে সিদ্দিক বলছেন, সন্তানের সুন্নতে খাতনা যে অপরাধ তা শুনে অবাক হলাম, এটা বাংলাদেশে নতুন মাত্রা যোগ করল।

শনিবার রাতে মারিয়া মিম বলেন, আমাকে সিদ্দিক ফোন দিয়ে বলল, বাবুকে আজকে দাও, একটা বিয়ের প্রোগ্রামে যাবো। আমি বললাম ওকে ফাইন। দিয়ে আসলাম বাবুকে সুন্দর করে রেডি করে। একটু আগে ফোন দিল, সাউন্ড পাচ্ছি বাবু কান্না করতেছে। আমি বললাম, কী হইছে? সিদ্দিক বলল, ওরে তো সুন্নতে খাতনা করালাম। ওহ, মাই গড, আমি জানতে পারবো না, ওরা আমার বাচ্চাকে নিয়ে যা খুশি করতে পারে না। সুন্নতে খাতনা করায়ে দিল এটা তো একটা ক্রাইম।

মিমের অভিযোগ ব্যাখ্যা করেছেন সিদ্দিক। তিনি বলছেন, ‘বাচ্চার বয়স হয়ে গেছে ৮ বছর বয়স। বাবা হিসেবে ছেলের খাতনা দেওয়া সুন্নত কাজ। তার কথা অনুযায়ী বাংলাদেশে সুন্নতে খাতনা করা যেন একটা অপরাধ, এইটা মনে হয় বাংলাদেশে নতুন মাত্রা যোগ করলো। সে জিডি করেছে, করতেই পারে। কিন্তু আমরা বারবার সুন্নতে খাতনার কথা বলেছি। কিন্তু সে তো দেশেই থাকে না। সে আগের সপ্তাহে বুর্জ খলিফা হোটেলে ছিল। যে মা বুর্জ খলিফা হোটেলে অবস্থান করে সে মায়ের ডেফিনেটলি তার সন্তানের সুন্নতে খাতনার প্রতি নজর থাকে না।

সিদ্দিক বলেন, ‘আমার ছেলের খাতনার জন্য গত দুই বছর ধরে কথা বলছি। এ নিয়ে তার কোনো কথা নেই। সে আছে দেশ বিদেশ নিয়ে। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ আমি নাকি না জানিয়ে খাতনা দিয়েছি। আমি হাসপাতাল থেকে তাকে ফোন দিয়েছি। তার যদি মনে হতো তাহলে এতো কথা না বলে হকাসপাতালে চলে আসতো। আমার সন্তানের মা কি করে না করে এসব নিয়ে বলতে চাই না।’

সিদ্দিক জানান, ছেলের খাতনার পরবর্তী ঢাকা ও টাঙ্গাইল দুই জায়গায় সাধারণ মানুষ ও মাদরাসা, এতিম বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের একবেলা খাবারের আয়োজন করবেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকায় এক হাজার মানুষকে খাওয়াবেন এবং টাঙ্গাইলে আরো বেশি মানুষকে খাওয়াবেন।

২০১২ সালের ২৪ মে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত স্পেনের নাগরিক মারিয়া মিমকে বিয়ে করেন সিদ্দিক। ২০১৩ সালের ২৫ জুন তারা পুত্রসন্তানের বাবা-মা হন।

সিদ্দিক ও মিমের মধ্যে ২০১৯ সালের অক্টোবরে বিবাহ বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। এরপরে সন্তান আরশ রহমান মা ও বাবার কাছে আদালতের নিয়মেই থাকছিল। এর আগে শনিবার রাতে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ তোলেন মারিয়া মিম।

সে সময় মিম জানান, দাম্পত্য কলহের জেরে অনেক কিছুই তারা মানিয়ে নিতে পারছিলেন না। তিনি চান শোবিজে কাজ করতে। কিন্তু সিদ্দিকের এতে আপত্তি। আর এ কারণেই বিচ্ছেদ হয় তাদের মধ্যে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: