সাতসকালে সড়কে ঝরল সাত প্রাণ

ফরিদপুরের মধুখালী ও ভাঙ্গা উপজেলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় সাতজন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে মধুখালীর মাঝকান্দি নামক স্থানে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে আজ রোববার সকাল ৮টার দিকে ট্রাক ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ১২ জন।

অন্যদিকে, ভাঙ্গা বিশ্বরোডে আজ ভোররাতে মোটরসাইকেল ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও একজন।

মধুখালীর মাঝকান্দিতে দুর্ঘটনা প্রসঙ্গে পুলিশ জানায়, আজ সকালে মধুখালী উপজেলার মাঝকান্দি নামক স্থানে ঢাকাগামী একটি হাইস মাইক্রোবাস ও খুলনাগামী একটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে এক নারীসহ দুজনের মৃত্যু হয়। এ সময় আহত হয় আরও অনেকে। আহতদের উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ (ফমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হলে শিশুসহ আরও তিনজনের মৃত্যু হয়।

করিমপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল আলম বলেন, ‘আমরা লাশগুলো উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসার ব্যবস্থা করছি। তবে এখন পর্যন্ত হতাহতদের পরিচয় জানা যায়নি।’

অন্যদিকে, ভাঙ্গা বিশ্বরোডে দুর্ঘটনায় নিহত দুজনের মধ্যে একজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তিনি হলেন ঢাকার সরকারি তিতুমীর কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র শাকিল খান (২২)। এ ছাড়া নিহত অপরজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

ভাঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ জানায়, আজ রোববার ভোরে শাকিল তাঁর দুই বন্ধুর সঙ্গে মোটরসাইকেল নিয়ে শিবচর থেকে ভাঙ্গার উদ্দেশে রওনা দেন। তাঁদের মোটরসাইকেলটি ভাঙ্গা বিশ্বরোডে পৌঁছালে একটি মাইক্রোবাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই শাকিলসহ মোটরসাইকেলে থাকা দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়। এ সময় আহত হন শাকিলের আরেক বন্ধু। তাঁকে উদ্ধার করে ফমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শেয়ার করুন