শীঘ্রই লকডাউন হচ্ছে ? জানুন বিস্তারিত…

শীঘ্রই লকডাউন হচ্ছে ? জানুন বিস্তারিত…

গত ২৩ জুলাই থেকে ১০ আগস্ট পর্যন্ত দেশজুড়ে লকডাউন পরিস্থিতি ছিল। এরপর ১১ আগস্ট থেকে লকডাউন শিথিল করে সরকারি-বেসরকারি সব অফিস, ব্যাংক থেকে শুরু করে গণপরিবহন, শপিং মল, দোকানপাট খুলে দেয়ার ঘোষণা দেয় সরকার। এরই মধ্যে গত ৯ আগস্ট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, মানুষের জীবন ও জীবিকার স্বার্থে সরকার কঠোর বিধিনিষেধ শিথিল করলেও পরিস্থিতি বিবেচনায় আবারও কঠোর লকডাউন দেওয়া হতে পারে।

এদিকে গত ১২ আগস্ট সচিবালয়ে সাংবাদিককের সঙ্গে আলাপকালে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি অবনতি হলে আবারও দেশজুড়ে লকডাউন আরোপ করা হতে পারে। তিনি বলেন, ‘আক্রান্ত বাড়তে থাকলে এবং মানুষ না মানলে আবার লকডাউন দেয়া হবে। এর বিকল্প কিছু নেই।’

সরকারের দুইজন প্রভাবশালী ব্যক্তির এমন মন্তব্যর পরে জনমনে প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে, আবারও লকডাউন দিতে চলেছে কিনা সরকার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক ধরণের গুজবেরও সৃষ্টি হয়েছে লকডাউনকে ঘিরে। এক শ্রেণির সাধারণ মানুষ মনে করছেন, চলতি সপ্তাহে কিংবা ২০ আগস্টের পর থেকে ফের লকডাউন দেওয়া হতে পারে। লকডাউনকে ঘিরে বিপরীত মন্তব্যও করছেন আরেক শ্রেণির মানুষ। তারা মনে করছেন, শীঘ্রই লকডাউন পরিস্থিতির দিকে হাটবে না সরকার। তাদের যুক্তি, টিকা কার্যক্রমের মাধ্যমেই করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা সম্ভব। সরকার সে পথেই হাটবে।

নতুন করে ফের লকডাউন দেওয়া হতে পারে এমন খবরে যারা শঙ্কিত, তাদের জন্য রয়েছে স্বস্তির খবরও। স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী ১৯ আগস্ট থেকে সড়ক, রেল ও নৌ-পথে সকল প্রকার গণপরিবহন চলাচলের অনুমতি দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এই প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এছাড়া ৫০ শতাংশ ব্যবহার করে পর্যটনকেন্দ্র-রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র চালু করারও অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

নতুন এই প্রজ্ঞাপনের ফলে একটি বিষয় পরিষ্কার, চলতি সপ্তাহে কিংবা ২০ আগস্টের পরপরই লকডাউন দেওয়ার সম্ভাবনা খুব কম । এছাড়াও সরকার এখন করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য লকডাউনের চেয়ে স্বাস্থ্যবিধি ও টিকায় বেশি মনোযোগী। এ বিষয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় সারাদেশে টিকা কার্যক্রম বেগবান করা হচ্ছে। আপনারা মাস্ক পরবেন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখবেন। জীবন-জীবিকার তাগিদে সব খুলে দেওয়া হলেও মনে রাখতে হবে জীবনের মূল্য অনেক বেশি। এখন আমাদের স্বাস্থ্যবিধি, টিকা আর মাস্কেই ভরসা করতে হবে।

দেশজুড়ে করোনা পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটলে আবারও লকডাউন পরিস্থিতির দিকে হাটতে পারে সরকার। তবে জীবন-জীবিকার তাগিদে ও দেশের অর্থনীতির কথা বিবেচনা করে চলতি সপ্তাহেই বা ২০ আগস্টের পরপর ফের লকডাউন বা কঠোর বিধিনিষেধ জারি হওয়ার সম্ভাবনা খুব কম, এমনটাই মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার করুন