শিশু ধর্ষণ চেষ্টার পর ছাত্রলীগ নেতার মদ্যপানের ছবি ভাইরাল

শিশু ধর্ষণ চেষ্টার পর ছাত্রলীগ নেতার মদ্যপানের ছবি ভাইরাল

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতা সুমন খানের বিরুদ্ধে পঞ্চম শ্রেণির শিশু শিক্ষার্থীকে (১০) ধর্ষণ চেষ্টার পর মদ্যপানের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ওই ছাত্রলীগ নেতা মির্জাগঞ্জ উপজেলার ৬নং মজিদবাড়িয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুমন খান (২৮) ও ভয়াং গ্রামের আজিজ খানের ছেলে।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের ভয়াংবাজার সংলগ্ন এলাকায় ওই শিশুটি ধর্ষণচেষ্টার ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় শনিবার শিশু শিক্ষার্থীর মা বাদী হয়ে মির্জাগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনার পরপরই ওই ছাত্রলীগ নেতার মদ্যপানের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ছবিতে স্পষ্ট দেখা যায় ওই ছাত্রলীগ নেতা বিদেশি মদের বোতল হাতে নিয়ে মদ্যপান করছেন। এ ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তেই সমালোচনার ঝড় ওঠে।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শিশুটি উপজেলার মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা ও স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। গত ৮ অক্টোবর শুক্রবার শিশুটি ভয়াংবাজারে তার খালার বাড়ি বেড়াতে যায়। দুপুরের দিকে সুমন ওই ঘরে যায় এবং শিশুটির খালাসহ কোনো স্বজন বাসায় না থাকার সুযোগে জোর করে ধর্ষণচেষ্টা চালায়। এ সময় ডাকচিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে শিশুকে উদ্ধার করেন। লোকজনের উপস্থিতিতে সুমন পালিয়ে যায়।

অভিযুক্ত সুমন খানের সঙ্গে মদ্যপানের বিষয়ে জানতে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে বিষয়ে মির্জাগঞ্জ থানার ওসি আনোয়ার হোসেন তালুকদার বলেন, ধর্ষণচেষ্টার আসামি সুমন খানকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মদ্যপানের ব্যাপারে তথ্য পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন