লাইফ সাপোর্টে খন্দকার মাহবুব হোসেন

লাইফ সাপোর্টে খন্দকার মাহবুব হোসেন

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও প্রবীণ আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেনকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে রাজধানীর এভারকেয়ার (সাবেক অ্যাপোলো) হাসপাতালে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে।

বিএনপির বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন বলেন, উনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। দুদিন আগেও উনার শারীরিক অবস্থা ভালো ছিলো। আমি নিয়মিত খোঁজখবর রাখছি, কথা বলছি। আজ হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়া উনাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও খন্দকার মাহবুব হোসেনের জুনিয়র অ্যাডভোকেট মাসুদ রানা বলেন, স্যারের সুস্থতার জন্য দেশবাসীর কাছে পরিবারের তরফ থেকে দোয়া চাওয়া হয়েছে। এর আগে গত ১৬ আগস্ট করোনা আক্রান্ত অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেনকে রাজধানীর বসুন্ধরায় এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সুপ্রিম কোর্টের প্রবীণ আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন ১৯৩৮ সালের ২০ মার্চ জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ল’ পাস করে ১৯৬৭ সালের ৩১ জানুয়ারি আইনজীবী হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হন। এরপর একই বছরের ২০ অক্টোবর তিনি হাইকোর্টের আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। ১৯৭৩ সালে দালাল আইনে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের সময় চিফ প্রসিকিউটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এ আইনজীবী।

চারবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এবং দুবার বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। ৫৪ বছরের আইন পেশায় দেশের প্রথম সারির সব রাজনীতিবিদের মামলা পরিচালনা করেছেন এ আইনজীবী। বর্তমানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন। এছাড়া তিনি বিএনপি সমর্থক আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আহ্বায়ক।

গত ৬ জুলাই কারাগারে থাকা মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দরিদ্র স্বপন কুমার বিশ্বাসের পক্ষে বিনা ফিতে আপিল বিভাগের আইনি লড়াই করে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি করেন সিনিয়র এ আইনজীবী।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *