রাশিয়ার হামলার খবর শুনেই বিয়ে, এরপরই দেশ রক্ষায় নেমে পড়লেন

রাশিয়ার সামরিক বাহিনী ইউক্রেনে হামলার শুরুর পরই দেশটির সাধারণ জনগনের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। অনেকেই দেশ ছেড়ে পালিয়ে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিচ্ছে। তবে তাদের কাতারে না হেটে ভিন্ন কিছুই করলেন ইউক্রেনের এক তরুণ-তরুণী।

ইউক্রেনে রাশিয়ার খবর শুনেই চটজলদি বিয়ে করেন ইয়ারনা এরিয়েভা এবং সাভিয়াতটসলাব ফুরসিন। কিন্তু, বিয়ের প্রথম দিনটি তাদের অতিবাহিত হয়েছে রাইফেল সংগ্রহ এবং ইউক্রেনকে রক্ষার প্রস্তুতি নিতে।

সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এরিয়েভা এবং ফুরসিন উভয়ই টেরিটোরিয়াল ডিফেন্স ফোর্সের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। যা ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীর একটি শাখা এবং বেশিরভাগ স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে গঠিত। অস্ত্র নিয়ে এই দম্পতি তাদের রাজনৈতিক দল ইউরোপীয় সলিডারিটি অফিসের দিকে রওনা হন।

তারা বলেন, ‘এই মুহূর্তে আমরা যা করতে পারি তা করছি। সুতরাং অনেক কাজ করতে হবে। কিন্তু তারপরেও, আমি আশা করি সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে। কিছু বেসামরিক নাগরিক যারা প্রতিরক্ষা বাহিনীর অংশ নয় তাদেরও রাইফেল দেওয়া হয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.