রাজের মোবাইলে অসংখ্য তরুণীর পর্নো ভিডিও’র ছড়াছড়ি

রাজের মোবাইলে অসংখ্য তরুণীর পর্নো ভিডিও’র ছড়াছড়ি

পরীমণির অভিযোগের সাথে সম্পৃক্ত থাকায় আলোচিত প্রযোজক, অভিনেতা ও রাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার নজরুল ইসলাম রাজের বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করেছে র‌্যাব। একই সময় রাজের আরো দুই সহযোগীকে আটক করা হয়েছে। গ্রেফতারের পর রাজের মোবাইল ফোনে অসংখ্য তরুণীর পর্নো ভিডিও পাওয়া গেছে।

অভিযান সূত্রে জানা যায়, বিকৃত যৌনাচারে একাধিক নারী পুরুষ একসাথে সমন্বিত যৌনাচারে ব্যবহার্য সরঞ্জামাদি সজ্জিত নজরুল ইসলাম রাজের ‘রাজ মাল্টিমিডিয়া’ প্রোডাকশন হাউজের কক্ষ এবং বিশেষ বিছানা পাওয়া গেছে।

ধারণা করা হচ্ছে, এই কক্ষটিতে পর্নোগ্রাফি তৈরি করা হতো। রাত ১০টার দিকে রাজের বাসা থেকে জব্দ করা মাদক ও সরঞ্জাম গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে নিয়ে আসেন র‍্যাব-১ এর সদস্যরা।

জানা গেছে, নজরুল ইসলাম রাজ তার প্রতারণা ও পর্নো ব্যবসায় দুই তরুণীকে ব্যবহার করে আসছেন। এদের একজনের ডাক নাম সেমি এবং অপরজন কাঁকন। দুজনই তার সার্বক্ষণিক সঙ্গী। এ দুই তরুণীকে দিয়ে তিনি ব্ল্যাকমেইলিংয়ের কাজ করতেন। পাশ্চাত্য পোশাকে অভ্যস্ত সেমি এবং কাঁকনকে নিয়ে হাজির হতেন সরকারি কর্মকর্তাদের

ফ্ল্যাটে অথবা বাসায়। একপর্যায়ে অনেকেই তাদের প্রেমে পড়ে যেতেন। যে কোনো মূল্যে তাদের সান্নিধ্য পেতে চাইতেন। এমন দুর্বলতার সুযোগ কাজে লাগিয়ে সরকারি কাজ বা তদবিরের টোপ ফেলতেন নজরুল। কোটি টাকা ঘুসের চেয়ে দ্রুততার সঙ্গে তার কাজ হয়ে যেত।

শেয়ার করুন