শিরোনাম:

সাহারা ম’রুভূমিতে জন্মেছে ১৮০ কোটি গাছ, দুশ্চিন্তায় গবেষকরা

দুই মিনিটের ঝড়ে লণ্ডভণ্ড শতাধিক ঘরবাড়ি

ঢাকায় সাত সকালে বৃষ্টি, ভোগান্তিতে মানুষ

চাকরি হারানোর পর হ্যান্ড মাইক হাতে আবার আলোচনায় সেই এএসআই

করোনা সংক্রমণ ৫ শতাংশে না আসা পর্যন্ত লকডাউন চলবে

মুনিয়ার ডায়েরিতেই বেরিয়ে এল বসুন্ধরার এমডির অবিশ্বাসের গল্প (ভিডিও সহ)

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত : এপ্রিল ৩০, ২০২১

রাজধানী গুল’শা’নের অভি’জাত ফ্ল্যাট থেকে কলেজ শি’ক্ষার্থী মুসা’রাত জাহান মুনিয়ার মরদেহ উ’দ্ধা’রের পরই আলো’চনায় আসে বাসায় সিসি টিভির ফুটে’জ আর মু’নি’য়ার হাতে লেখা ডায়ে’রিসহ বেশকিছু ডিভা’ই’সের কথা।

ঘটনার পরে তার বড় বোন নু’সরাত জাহান তানিয়াও জানান, নিত্য’দিনে’র ঘটনা লিখে রাখা মু’নি’য়ার অভ্যাস ছিল।

পুলি’শ’ও জানিয়েছে, মুনি’য়ার লেখা ডা’য়ে’রিতেও আ’সা’মির সঙ্গে তার স’ম্পর্কে’র টানা’পো’ড়েন এবং সম্প’র্কের স্বী’কৃতি আ’দায়ের বিষয়ে নানা বর্ণ’নার উ’ল্লে’খ রয়েছে।

এ অব’স্থায় নি’হ’ত মুনিয়ার লেখা ছয়টি ডায়ে’রির কিছু অং’শ এসেছে সময় সংবা’দের হাতে। ডা’য়েরি পর্যা”’লোচনা করলে দেখা যায়, বসুন্ধরার এমডি সায়েম সোবহান আন’ভীর আর মুনি’য়ার গভীর প্রে’মের সম্প’র্কের কথা রয়ে’ছে ডা’য়েরির প্র’তিটি পা’তায় পাতায়।

গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের ১৭ তারিখে মুনিয়া লেখেন, ‘আজকে আন’ভীরকে নি’য়ে স্ব’প্ন দেখি। জানি না, তবে সারা’দিন তাকে নিয়ে ভাবি হয়তো তাই।’

একই বছরের অ’ক্টো’বর মাসের ৭ তারিখে লেখেন, ‘আজকে তার (আনভীর) কিছু পি’চ্ছিা’কালের ছবি পাঠালো দেখেই মা’য়া লাগছিল।’ এভাবেই ডায়েরির প্রতিটি পর’তে পরতে আ’নভী’রের প্রতি ভালো’বা’সার প্র’কা’শ ঘ’টান মুনিয়া।

তবে সময় গড়ালে ভা’লো’বাসার মধ্যে অভিমান আর ক’ষ্টের কথা যোগ করেন মু’নিয়া। ২০২০ এর নভে’ম্বর মাসে’র ২৯ তারিখে আ’নভী’রকে উদ্দে’শ্য করে লেখেন, ‘তাকে দেয়া’র মতো সত্যি’কা’রের ভা’লো’বাসা ছাড়া কিছুই নাই। যা তিনি কো’নো’দিন বো’ঝে না আর বু’ঝ’লেই কী এই’গু’লোর কোনো মূল্য নেই।’

আন’ভী’রের ফেস’বুকের বিভিন্ন বিষয় নি’য়েও বর্ণ’না করেন ‍মুনি’য়া। আন’ভীরের একটি ছ’বি প্রাই’ভেট করতে বললে আন’ভীর তাকে বলে, ‘তুমি আ’মার সব খেয়াল রাখ।’

বসুন্ধ’রার এমডি আ’ন’ভীরের পরি’বারের প্র’তি সন্মা’নের কথা জানি’য়ে নিজে’র পরিবা’রের ক’ষ্টের ক’থাও লেখেন মুনিয়া। নিজ পরিবারে কো’নোদিন শা’ন্তি না পা’ওয়ার কথাও উ’ল্লেখ করেন মুনিয়া।

এদিকে, মু’নি’য়ার বড় বো’ন নুসরা’ত জা’হান তানিয়া ডা’য়েরি ছাড়া’ও অন্য ডি’ভাইস’গুলোকে আ’মলে নেয়ার জন্য আই’নশৃ’ঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘ওর ডি’ভাই’সের মধ্যে অনেক এভি’ডেন্স আছে। এগু’লো এখনও হয়’তো মিডি’য়ার কাছে আসে’নি। হয়তো ওইটা নিয়ে কাজ করছে পুলি’শ। এই মে’য়েটার হ’ত্যা’র বিচার হলে কালকে আপনার মেয়ে সুরক্ষিত থাকবে।’

পুলি’শ বলছে, মুনি’য়ার ডায়ে’রিকে সর্বো’চ্চ গুরু’ত্ব দিয়েই তদ’ন্ত করছেন তারা।

ঢাকা মেট্রো’প’লিট্রন পু’লি’শের গুলশা’ন বিভা’গের উপ-কমি’শনার সুদীপ কু’মার চ’ক্র’বর্তী বলেন, ‘এটা আমরা মনে করছি অ’ত্যন্ত গুরু’ত্বপূর্ণ উপা’দান এবং চর’ম মান’ষিক হতা’শার জন্য সে এই প’র্যায়ে এসে আ’ত্ম’হ’ত্যাকে বে’ছে নিয়েছিল

এই বি’ষয়’টাকে সং’জ্ঞা’য়িত করা, এই বিষ’য়গু’লোকে প্রতি’ষ্ঠা করা এবং এই বিষ’য়গুলো’কে সাক্ষ্য গ্রহ’ণের নিরিখে এ’ইগু’লোকে প্র’মাণ ক’রার জন্য আ’রও যে যে সা’ক্ষ্য প্র’মাণ দরকা’র সে’গুলো সংগ্র’হের জন্য আ’মরা চে’ষ্টায়’ আছি।’

নিজের পরিবারের সমস্যার কথা আনভীরকে জানালে কোনও গু’রুত্ব না দেয়ার কথা ডা’য়েরিতে বিভিন্ন সময়ে উল্লেখ করেন মু’নিয়া। এ বিষয়ে মুনিয়া লিখেন, ‘পরিশে’ষে আ’মার স’ম’স্যাটা বললাম কি’ন্তু’ তার তেমন কোনো গু’রুত্ব দেখলাম না।’

Facebook Comments
শেয়ার করুন

পূর্ববর্তী সংবাদ পরবর্তী সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত