ভারতে শিল্পার স্বামী, বাংলাদেশে পরীমনি: অভিযোগ একই, পর্নোগ্রাফি?

ভারতে শিল্পার স্বামী, বাংলাদেশে পরীমনি: অভিযোগ একই, পর্নোগ্রাফি?

গত ১৯ জুলাই ভারতে বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী এবং বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রা গ্রেপ্তার হন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ— তিনি পর্নো তৈরি করে তা বিভিন্ন অ্যাপে প্রচার করতেন। এরপর গোটা ভারতে বিষয়টি নিয়ে হৈচৈ শুরু হয়েছে। এ নিয়ে রাজ কুন্দ্রার স্ত্রী শিল্পা শেঠিকেও তদন্তের জন্য দু’বার জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন তদন্তকারী অফিসাররা। পর্নোগ্রাফি ব্যবসার সঙ্গে শিল্পা শেঠিও যুক্ত কিনা এনিয়েও চলছে তুমুল আলোচনা।

ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে- তারকা দম্পতির বাড়িতে যখন অভিযান চালানো হয়েছিল, সেই সময় সেখানে রাজও উপস্থিত ছিলেন। মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চ তল্লাশি চালিয়েছিল রাজের একটি অফিসে। সেখানে একটি গোপন আলমারি এবং একটি দেওয়ালের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে৷ উদ্ধার করা হয়েছে কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি। এছাড়াও ৭০টি নীল ছবির ভিডিও পাওয়া গিয়েছে।

এদিকে, রাজ কুন্দ্রার পর্নো কাণ্ডের সঙ্গে কলকাতা যোগাযোগ যেন ক্রমশঃ স্পষ্ট হয়ে উঠছে।

কলকাতা থেকে মানবজমিনের প্রতিনিধি জানান, কলকাতায় পৃথক একটি ঘটনায় দমদম থেকে নন্দিনী দত্ত এবং নাকতলা থেকে মৈনাক ঘোষকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নিউ টাউন থানায় দুই তরুণী অভিযোগ করে, সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে নন্দিনী দত্ত এবং মৈনাক ঘোষের সঙ্গে তাদের পরিচয় হয়। দুজনেই মডেলিং এ আগ্রহী ছিল।

তাদের নিউ টাউনের একটি ফ্ল্যাট এ নিয়ে গিয়ে মডেল শুট এর বদলে পর্নো ছবিতে অভিনয় করতে জোরাজুরি করা হয় বলে তারা এফআইআর করে। পুলিশের জেরায় ধৃতরা জানিয়েছে, সিঙ্গাপুর এবং দুবাইতে বাঙালি মেয়েদের পর্নো ছবির খুব চাহিদা। সেই কারণে নিউ টাউনের ফ্ল্যাটে তারা পর্নো ছবি নির্মাণের শিল্প গড়ে তুলেছিল।

এদিকে, বুধবার ঢালিউডের বহুল আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনির বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করেছে র‌্যাব (র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন) এর একটি দল।পরীমনিকে আটকের পর র‌্যাব সদস্যরা জানান, অভিযানে তার বাসা থেকে মাদক উদ্ধার করা হয়েছে।

এর আগে বলা হচ্ছিল, সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে চিত্রনায়িকা পরীমনির বাসায় অভিযান চলছে। কি সেই সুনির্দিষ্ট অভিযোগ, তা নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই শুরু হয় ব্যাপক জল্পনা।

মূলধারার গণমাধ্যম বিভিন্ন সূত্রে জানিয়েছে, পরীমনি ও তার পরিচিত কয়েক জনের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি ও ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এদিকে, পরীমনির বাসার পর রাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার চলচ্চিত্র প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের বনানীর বাসায় র‍্যাব অভিযান পরিচালনা করেছে বলে জানা গেছে। সবমিলিয়ে অনেকেই তাই প্রশ্ন করছেন, বলিউডের সাথে পাল্লা দিয়ে ঢালিউডের তারকাদেরও কি ধরা হচ্ছে পর্নোগ্রাফির মামলায়?

শেয়ার করুন