ভারতে আবাদের পানি দেওয়া বন্ধ করলো ভুটান, আসামে কৃষকদের বিক্ষোভ

ভারতের আসামে সেচের চ্যানেল দিয়ে আসা পানি প্রবাহ বন্ধ করে দিয়েছে পার্শ্ববর্তী দেশ ভুটান। যার ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন স্থানীয় কৃষকরা। ভুটান সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন আসামের কয়েক শ কৃষক।

আজ ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনা পরিস্থিতিতে দেওয়া লকডাউনের কারণে ভুটান সরকার দেশটিতে বাইরের সবার প্রবেশ বন্ধ রেখেছে। তারা বলেছে, ভারতীয় কৃষকরা ভুটানে উৎপন্ন হওয়া সেচ চ্যানেল ব্যবহার করতে পারবে না।

কিন্তু, ভুটানের সেচ চ্যানেল হয়ে আসামে তৈরি কৃত্রিম সেচ চ্যানেলে যে পানি আসে, তা ব্যবহার করেই চাষাবাদ করে থাকেন আসামের উত্তর-পূর্বে অবস্থিত বাকসা জেলার তামুলপুর সাব-ডিভিশনের প্রায় ২৫টি গ্রামের হাজারো কৃষক। বিগত কয়েক দশক ধরেই ভারত-ভুটান সীমান্তবর্তী গ্রামগুলোর কৃষকরা সেখানকার পানি ব্যবহার করে চাষাবাদ করছেন।

সেচ চ্যানেলের পানি ছাড়া কৃষকরা ধান খেতে পানি সেচ দিতে পারবেন না। তাই ভুটান সরকারের এই সিদ্ধান্তে ভোগান্তিতে পড়েছেন বাকসা জেলার কৃষকরা। এই কারণে গত ২২ জুন তারা বিক্ষোভ করেছেন। সে সময় তারা কয়েক ঘণ্টাব্যাপী রঙ্গিয়া-ভুটান সংযুক্ত সড়ক অবরোধ করে রাখেন। তাদের দাবি, আসাম সরকার যেন দ্রুত এই সমস্যা সমাধানে ব্যবস্থা নেয়।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি লাদাখে ভারত ও চীনের সীমান্তবিরোধকে কেন্দ্র করে উভয় দেশের সেনা সংঘর্ষের পর দুই দেশের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছিল। পরে দুই দেশের কমান্ডিং অফিসারদের মধ্যে ১১ ঘণ্টার বৈঠকের পর কিছুটা সমঝোতা আসে। এর মধ্যেই পার্শ্ববর্তী দেশ ভুটান এমন সিদ্ধান্ত নিলো।

শেয়ার করুন