বেঁচে আছি উদ্ধার অ’ভিযান বন্ধ করবেন না: ভেতর থেকে আটকে পড়া শ্রমিকদের বার্তা

স্বর্ণের খনিতে বি’স্ফোরণের পর মাটির নিচে আটকা পড়া শ্রমিকরা বার্তা পাঠিয়েছেন। এরই মধ্যে শিচেং টাউনশিপ এলাকায় ওই দুর্ঘটনার পর আটকা পড়াদের বের করে আনতে উদ্ধারকারী দল পাঠিয়েছে চীনা কর্তৃপক্ষ। ঘটনাটি ঘটেছে চীনের পূর্বাঞ্চলীয় সানডং প্রদেশে।

এক সপ্তাহ আগে বিস্ফোরণের ঘটনায় খনিতে আটকেপড়া শ্রমিকদের যে বার্তা পেয়েছে উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা, তাতে বেলা হয়েছে- এখনো ১২ জন শ্রমিক জীবিত অবস্থায় রয়েছে।
গত ১০ জানুয়ারি থেকে সেখানে আটকা পড়ে আছেন শ্রমিকরা। তাদের বের করার জন্য যে সুড়ঙ্গ তৈরি করা হচ্ছে,

সেখান থেকেই ১২ জন জীবিত থাকার চিরকুট পাওয়া গেছে। ওই খনিতে মোট ২২ জন শ্রমিক আটকে পড়েছে। ১২ জন জীবিত থাকার বিষয়টি জানা গেলেও বাকিদের সঙ্গে ঠিক কী ঘটেছে, তা এখনো অজানা। এসব শ্রমিকের হাতে লেখা চিরকুটে লেখা আছে, আটকেপড়া শ্রমিকরা ক্লান্ত। আমাদেরকে উদ্ধার করার প্রচেষ্টা বন্ধ করবেন না। তাদের জন্য চিকিৎসা সরঞ্জাম দরকার। ব্যথানাশক ট্যাবলেট, ওষুধ এবং ব্যান্ডেজ দরকার।

এছাড়া খাবার ও পানীয় জলের চাহিদার কথাও জানিয়েছে তারা। চিরকুটে উল্লেখ রয়েছে, বাতাস হালকাভাবে ঢুকছে। তবে ময়লা আর পানিতে খনি ভরে আছে। তাদের প্রত্যাশা, উদ্ধার অভিযান চলমান থাকবে। চীনে খনি দুর্ঘটনা নতুন কিছু নয়। যথেষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থার অভাবের কারণে দেশটিতে বারবার খনি দুর্ঘটনা ঘটে।

গত বছরের ডিসেম্বর মাসে একটি কয়লার খনিতে কার্বন মনোক্সাইড গ্যাস ছড়িয়ে পড়ার কারণে ২৩ শ্রমিকের মৃ’ত্যু হয়েছিল। একই বছরের সেপ্টেম্বর আরেকটি খনিতে আগুন লেগে ১৬ শ্রমিক নি’হত হন। এছাড়া, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর চীনের আরেকটি কয়লার খনিতে আগুন লেগে ১৬ শ্রমিকের ম’র্মান্তিক মৃ’ত্যু হয়।

শেয়ার করুন

Check Also

মঙ্গল থেকে আর হয়তো ফেরা হবে না ১৮ বছরের এই এলিজার!

মা’র্কিন কি’শোরী এলিজা কারসন কিছুদিন আগেই মঙ্গলগ্রহ অ’ভিযানে যোগদান করার ইচ্ছাপ্রকাশ করে খবরের শিরোনামে ছিলেন। …