‘বুক চিনচিন করছে’ দিয়ে ভাইরাল পাবেল

এফ আই মানিকের ‘ফুল নেবো না অশ্রু নেবো’ ছবিতে এন্ড্রু কিশোর, কনকচাঁপা ও বিপ্লবের গাওয়া ‘বিধি তুমি বলে দাও’ আর বদিউল আলম খোকনের ‘বাস্তব’ সিনেমায় এন্ড্রু কিশোর ও ডলি সায়ন্তনীর গাওয়া ‘বুক চিনচিন করছে’ গান

দুটি সম্প্রতি নতুন করে তৈরি হয়েছে। চলচ্চিত্রের এই গান দুটি নতুনভাবে ব্যবহার করা হয়েছে ‘শিল্পী’ নামের এক নাটকে। পুরুষ কণ্ঠের পাশাপাশি নারী কণ্ঠে এই গান দুটি গেয়ে আলোচিত তরুণ গায়ক জাহেদ পারভেজ পাবেল। অন্তর্জাল দুনিয়ায় মাস না পেরোতেই গান দুটি ভাইরাল হয়েছে। এ সাফল্যে ভীষণ আনন্দিত ও উচ্ছ্বসিত পাবেল।

গান যেমন ভাইরাল, তেমনি নাটকটিও মাত্র ২৬ দিনে এক কোটিবার দেখা হয়েছে। মহিদুল মহিম পরিচালিত ‘শিল্পী’

নাটকটিতে জুটি বেঁধেছেন আফরান নিশো ও মেহজাবীন চৌধুরী। জানা গেছে, পুরুষ কণ্ঠের পাশাপাশি নারী কণ্ঠে পাবেলের গাওয়া গান দুটি নাটকের অভিনয়শিল্পী আফরান নিশো ও মেহজাবীনের ভীষণ পছন্দ হয়েছে। ইতিমধ্যে গান দুটি ইউটিউব, ফেসবুক ও টিকটকে ভাইরাল হয়েছে। তাই গান দুটি মুক্তির পর আলোচনায় তরুণ এই গায়ক।

পাবেলের পরিবারের কেউ গান করেন না। দশম শ্রেণিতে পড়াকালীন হাবিব ওয়াহিদের গান শুনে গানের প্রতি ভালো লাগা জন্মে তাঁর। স্বপ্ন দেখেন একদিন গান করবেন। বন্ধুবান্ধব যখন ক্লাস শেষে আড্ডা ও খেলাধুলায় ব্যস্ত থাকত, পাবেল

করতেন গানের চর্চা। ১০ বছর আগে পেশাদার শিল্পী হিসেবে গাইতে ঢাকায় আসেন তিনি। এখনো ঢাকা-চট্টগ্রাম আসা-যাওয়ার মধ্যে থাকেন। এরই মধ্যে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক সম্পন্ন করে এখন পুরোপুরি গান নিয়ে ব্যস্ত। তাঁকে উৎসাহ দিয়েছেন তাঁর মা ও মেজ ভাই, জানালেন প্রথম আলোকে।

পাবেলের গাওয়া গান দুটি নতুন করে সংগীতায়োজন করেছেন আভরাল সাহির। গানের রেকর্ডিংয়ের পর তাঁরাও ভেবেছিলেন, নতুনভাবে তৈরি হওয়া গান দুটি দর্শক-শ্রোতারা দারুণভাবে গ্রহণ করবেন। শেষ পর্যন্ত হয়েছেও তা-ই।

পাবেল বলেন, ‘গান দুটি প্রকাশের পর দেশের আনাচে-কানাচে বিভিন্ন অনুষ্ঠান থেকে উদযাপনের এত মজার সব ভিডিও ক্লিপ পেয়েছি, যা দেখে আমি সত্যিই অভিভূত হয়েছি। দর্শক-শ্রোতার কাছ থেকে এমন প্রতিক্রিয়া পেতে খুবই ভালো লাগে। নতুন কাজের অনুপ্রেরণা আসে।

পরিশ্রম সার্থক মনে হয়। যাঁরা আমার কণ্ঠে গান দুটি পছন্দ করেছেন, তাঁদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। অনেক সময় মেয়েদের স্বর নকল করে বন্ধুদের সঙ্গে ফোনে মজা করতাম। এবার প্রথমবারের মতো ছেলে ও মেয়ে দুই কণ্ঠে গান

করলাম। এটি ছিল আমার কাছে এক ভিন্নধর্মী কাজ। নাটকটিতে কাজ করে একটা মজার অভিজ্ঞতা হলো। আশা করছি আগামী দিনে আরও ভালো কাজ উপহার দিতে পারব।’

এর আগেও একাধিক নাটকের গানে কণ্ঠ দিয়েছিলেন পাবেল। সেগুলোর মধ্যে ‘আনোয়ার দ্য প্রোডাকশন বয়’, ‘মি. পরিবর্তনশীল’, ‘ইনসিকিউরিটি’, ‘সাইড ইফেক্ট’ নাটকগুলোর পরিচালক মহিদুল মহিম। আর গানগুলোর সুর ও সংগীত পরিচালক আভরাল সাহির। পাবেল জানান, ২০১১ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ১০টি মিশ্র গানের অ্যালবামে কাজ করেছেন

তিনি। ২০১৫ সালে প্রথম একক অ্যালবাম প্রকাশ করেন। এ ছাড়া প্রকাশিত হয়েছে তিনটি সংগীতচিত্র। ‘শুধু তুমি’ প্রকাশ পায় ২০১৪ সালে আর সর্বশেষ ছিল ‘পাঞ্জাবিওয়ালা’খ্যাত শিরিনের সঙ্গে ‘পিরিতির নেশা’, যা শিরিনের গাওয়া প্রথম কোনো দ্বৈত গান।

শেয়ার করুন

Check Also

ভয়ঙ্কর মাস্তান হলেন মোশাররফ করিম

শোবিজ ভুবনের আলোচিত মুখ মোশাররফ করিম। এই পর্যন্ত বেশ কয়েকটি ব্যবসাসফল সিনেমা করে আলোচনায় কেন্দ্রবিন্দুতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *