বাংলাদেশে গৃহহীনদের ঘর করে দিতে চায় তুরস্ক

বাংলাদেশে গৃ’হহীন মা’নুষদের দু’র্যোগ স’হনীয় ঘ’র তৈরি করে দিতে চায় তুরস্কের সরকার। তবে কতটি প’রিবারকে তারা ঘ’র তৈরি করে দেবে সে বি’ষয়ে এখনও সি’দ্ধান্ত হয়নি। এ ক্ষেত্রে দুই ধরনের ঘ’র করে দিতে আ’গ্রহী রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান সরকার। এর জ’ন্য কত টাকা খ’রচ হবে, সেটা সরকারের কাছ থেকে জেনে নিয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওস’মা’ন তুরান।

দূত জা’নান, এরদোয়ান তার ঢাকা সফরে এস’ব ঘ’র গৃ’হহীনদের হা’তে তুলে দিতে চান। স্বা’ধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আ’গামী মা’র্চে এরদোয়ানকে বাংলাদেশ সফরের আম’ন্ত্রণ জানিয়ে রে’খেছে ঢাকা। এই সফরে এসে এরদোয়ান বাংলাদেশে আধুনিক তুরস্কের প্র’তিষ্ঠাতা কা’মাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য উদ্বোধন করতে চান ব’লে আ’গেই জা’নানো হয়েছে। তার দেশেও বঙ্গব’ন্ধুর একটি ভাস্কর্য নি’র্মাণ হবে এরদোয়ান সরকারের টাকায়।

সরকার তুরস্কের দূতকে জানিয়েছে, ইটে’র তৈরি ঘ’র করতে খ’রচ হবে এক লাখ ৮০ হাজার টাকা। আর ভাঙনপ্রবণ এ’লাকায় হবে স্থা’নান্তরযোগ্য স্টিলের কা’ঠামোর বা’ড়ি, যেগুলোতে খ’রচ হবে সোয়া তিন লাখ টাকা। প্র’তিটি ঘ’রের আয়তন হবে ৪৪০ বর্গফুট।

রোববার (২০ ডিসেম্বর) দুপুরে স’চিবালয়ে দু’র্যোগ ব্য’বস্থাপনা ও ত্রাণ প্র’তিম’ন্ত্রী এনামুর রহমা’নের স’ঙ্গে দেখা করে এ ক’থা জা’নান ঢাকায় তুরস্কের রাষ্ট্রদূত।

বৈঠক শেষে সাং’বাদিকদের প্র’তিম’ন্ত্রী জা’নান, গত ১৩ অক্টোবর আন্তর্জাতিক দু’র্যোগ প্রশমন দিবসের প্রধানম’ন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৭ হাজার দু’র্যোগ স’হনীয় ঘ’র তুলে দিয়েছেন ঘ’রহীন মা’নুষের হা’তে। সেই অ’নুষ্ঠানে ছিলেন তুর্কি রাষ্ট্রদূত ও দেশটির সংস্থা টার্কিশ কো-অ’পারেশন অ্যান্ড অর্ডিনেশন এজেন্সি-টিকার স’মন্বয়ক।

ওই অ’নুষ্ঠানের প’রদিন তুর্কি দূত প্র’তিম’ন্ত্রীর স’ঙ্গে দেখা করে জা’নান, তার দেশও ঘ’র তৈরি করে দিতে আ’গ্রহী।

প্র’তিম’ন্ত্রী ব’লেন, ‘সেদিন তারা জা’নান দেশটির প্রেসিডেন্টে’র পক্ষ থেকে টিকার মাধ্যমে দু’র্যোগ স’হনীয় ঘ’র তৈরিতে অ’নুদান দিতে চায় তাদের সরকার। আম’রা প্রা’থমিক আলোচনা করেছিলাম আজকের দ্বি’তীয় দফা আলোচনা।

প্র’তিম’ন্ত্রী আরো জা’নান, যাদের জায়গা আ’ছে কিন্তু ঘ’র নেই তাদের ঘ’র করে দিতে অ’নুদান দেবে এরদোয়ান সরকার। আর এস’ব ঘ’র তৈরির খ’রচগুলো তাদেরকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

কবে থেকে এস’ব ঘ’র তৈরি শুরু হবে- জানতে চাইলে প্র’তিম’ন্ত্রী ব’লেন, ‘তারা খ’রচগুলো নোট করেছেন। ব’লেছেন টিকার স’ঙ্গে আলোচনা করে প্রস্তাবটি চেয়ারম্যানের কাছে পাঠানো হবে। সেখান থেকে অ’নুমোদন হয়ে আসলে আম’রা পাইলটিং করবো। সাকসেসফুল পাইলটিং শেষে আম’রা সারা দেশব্যা’পী ঘ’র করার জ’ন্য স’হায়তা দেব। এবং তারা আশা করে তুরস্কের রাষ্ট্রপতি ঘ’র কা’র্যক্রম হ’স্তান্তর করার অ’নুষ্ঠানটি উদ্বোধন করবেন।

কতটি ঘ’র তৈরি করে দেবে বা কত টাকা তারা আর্থিক স’হায়তা দেবে- এমন প্রশ্নে প্র’তিম’ন্ত্রী ব’লেন, ‘সে ব্যা’পারে আজকে কোন সি’দ্ধান্তে আ’সা যায়নি। তারা ব’লেছেন, আজকে আ’পনাদের ডিসকাশন শুনলাম, ঘ’রের টাইপ দেখলাম, ঘ’রের প্রাইস দেখলাম। তিনি আম’রা নিজেরা আলোচনা করব।

‘ফান্ডের এভেইলেবিলিটি কেমন আ’ছে সেটা আম’রা প’রীক্ষা নিরীক্ষা করে কত অ’নুদান দেয়া যায় সে বি’ষয়ে সি’দ্ধান্ত নেব। কোন ধরনের ঘ’র কতটা নি’র্মাণ করা হবে সেটাও তারা প’রবর্তিতে জা’নাবে।’

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: