ফেসবুকে প্রেম, আবাসিক হোটেলে নিয়ে ধর্ষণ

মাদারীপুরে দীর্ঘদিন ফেসবুকে পরিচয়ে ইতালী প্রবাসীর সাথে প্রেম এবং বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আবাসিক হোটেলে ধর্ষণের শিকার হয়ে আত্মহত্যা চেষ্টা করেছে এক শিক্ষার্থী। রবিবার (৩০ আগস্ট) দুপুরে মাদারীপুর শহরের ভূঁইয়া ইন আবাসিক হোটেলে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে রাতেই হোটেল ম্যানেজারসহ সহযোগী ৪ জনকে আটক করেছে মাদারীপুর সদর মডেল থানা পুলিশ।

অভিযুক্ত বায়েজিদ মাতুব্বর শিবচর উপজেলা নিলখী গ্রামের আক্কাস মাতুব্বরের ছেলে এবং ধর্ষণের শিকার শিক্ষার্থীর বাড়ি মাদারীপুর সদর উপজেলার শিরখারা ইউনিয়নের শ্রীনদী গ্রামে। বর্তমানে সে অসুস্থ অবস্থায় মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিৎকিসাধীন রয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ইতালী প্রবাসী বায়েজিদ প্রবাসে থাকা অবস্থায় ফেসবুকে পরিচয় হয় ওই শিক্ষার্থীর। তারপরে দুজনের মধ্য প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ওই সম্পর্কের সূত্র ধরে রবিবার বায়েজিদ তার সহযোগীদের নিয়ে মাদারীপুর শহরের ভুঁইয়া ইন আবাসিক হোটেলে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত থাকা অবস্থায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। এরপর ঐ শিক্ষার্থীকে বিয়ে করতে অস্বীকার করায় সে ঘুমের ঔষধ খেয়ে আত্মহত্যা চেষ্টা করে।

ধর্ষণের শিকার শিক্ষার্থীর চাচাতো ভাই জানায়, ফেসবুকে পরিচয়ে তার সাথে দেখা করতে এসে এই অবস্থা হয়েছে। প্রধান আসামীকে এখনো আটক হয়নি।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো. কামরুল ইসলাম মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আমরা প্রাথমিকভাবে হোটেল ম্যানেজারসহ ৪ জনকে আটক করেছি এবং একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.