প্রাডো গাড়িতে হিরো আলম, দুই দিকে শত শত মানুষ!

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ পরিস্থিতির অবনতি আর না হলে ১৬ অক্টোবর থেকে সিনেমা হলগুলো স্বাস্থ্যবিধি মেনে খুলে দেয়া হয়েছে।

গত ২১ সেপ্টেম্বর সচিবালয়ে চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সঙ্গে বৈঠকের পর তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছিলেন।

এদিকে করোনাকালীন ছবি মুক্তিতে প্রযোজক-পরিচালকদের যখন অনাগ্রহ ঠিক তখন, প্রেক্ষাগৃহ খোলার প্রথমদিনই মুক্তি পেয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচিত মুখ আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম প্রযোজিত ও অভিনীত নতুন ছবি ‘সাহসী হিরো আলম’। এ কারণে শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর কয়েকটি সিনেমা হলে হিরো আলম প্রাডো আর দুইদিকে শত শত মানুষ, ঠিক এমনটাই দেখা গেল!

গতকাল থেকে সারাদেশের সিনেমা হল খুলে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু মুক্তি পায়নি কোনো নতুন ছবি আর এই সুযোগটাকেই লুফে নিয়েছেন বগুড়ার আশরাফুল আলম ওরফে ডিশ আলম ওরফে হিরো আলম। গত মার্চে মুক্তি দেওয়ার অপেক্ষায় থাকা তার প্রযোজনা নির্মিত ছবিটি মুক্তি দিলেন করোনা পরবর্তী হল খুলে দেওয়ার প্রথম সপ্তাহেই।

গত বছর আশরাফুল আলম নিজের প্রযোহজনায় সাহসী হিরো আলমের নামের একটি ছবি নির্মাণের কাজ শুরু করেন, যার সম্পূর্ণ কাজ সম্পন্ন হয় চলতি বছরের গোড়াতেই। আলম ছবিটি মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা করেন মার্চ মাসের শেষদিকে।

কিন্তু বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও করোনা আঘাত করে মার্চের গোড়ার দিকে। ফলে মার্চের মাঝামাঝি পেরোতেই জনজীবনে স্থবিরতা নেমে আসে। মাসের শেষদিকে ঘোষণা করা হয় সাধারণ ছুটি। কার্যত লকডাউন হয়ে পড়ে গোটা দেশ। অন্যান্য সকল কিছুর মতোই বিনোদন মাধ্যমেও আঁচ লাগে করোনার তাণ্ডব। বন্ধ ঘোষণা করা হয় দেশের সকল হল।

অক্টোবরের ১৬ তারিখ অর্থাৎ শুক্রবার অর্ধেক আসনে বসার শর্তে খুলে যায় দেশের সকল সিনেমা হল। এ ছাড়া সিনেমা হল কর্তৃপক্ষকে সব ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হয়। এদিকে সিনেমা হল খোলার দিনেই মুক্তি ৪০ টি হলে মুক্তি পায় আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম প্রযোজিত ও অভিনীত সিনেমা সাহসী হিরো আলম।

মুক্তির প্রথম দিনেই রাজধানীর চিত্রামহল, জিঞ্জিরার নিউ গুলশান হল, ফার্মগেটের আনন্দ সিনেমাসহ নারায়ণঞ্জে নায়িকা সমেত একটি পাজেরো নিয়ে হিরো আলম ঘুরে বেড়ান। এসময় হিরো আলমকে দেখতে সিনেমা হলগুলোর সামনে উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়। একের পর এক সেলফি তোলা, দর্শকদের হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানানো, হলের ভেতরে ভক্তদের উদ্দেশ্যে দু’চার কথা বলতে শোনা যায় যায় আলমকে।

আশরাফুল আলমের দাবি, তাঁর ছবি মোটামুটি ভালোই চলছে। তিনি বলেন, ‘আমি বলবো না আমার ছবি সুপার ডুপার হিট। কিন্তু আমার ছবি বিভিন্ন হলে চলছে, মানুষজন দেখতে আসছে। এসব দেখেই আমি সন্তুষ্ট। আমার ভালো লাগছে যে এতো মানুষ হলে আসছে, আমি আশা করি নাই। আমি বলবো আলহামদুলিল্লাহ।’

দেশের ৬৬ টি হলে শুক্রবার থেকে ছবি প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। যার মধ্যে ৪০ টি হলে সাহসী হিরো আলম ও বাকি হলগুলোতে পুরনো ছবি চলছে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: