প্রতিদিন ৮০ রাকাতের বেশি নামাজ পড়েন শামীম ওসমান

আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী নেতা হিসেবে সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের খ্যাতি রয়েছে পুরো দেশে। প্রাচ্যের ডান্ডিখ্যাত নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে রয়েছে তার বিশাল কর্মীবাহিনী।

তাছাড়া অতি অল্প সময়ের নোটিশে হাজার হাজার কর্মীর সমাগম করাতে পারেন তিনি। কখনও সমালোচনা আর আলোচনায় থাকা এই নেতা করোনাকালে হাজারো মানুষের পাশে দাড়িঁয়ে মানবিকতার উদাহরণও সৃষ্টি করেছেন।

তবে রাজনীতির বাইরে গত কয়েক বছরে নিজের ইমেজ সৃষ্টি করতে স্বক্ষম হয়েছেন একজন খোদা ভীরু ব্যক্তি হিসেবে। বিশেষ করে রাজনৈতিক সভা সমাবেশের চেয়ে ওয়াজ মাহফিলে বক্তব্য দিতেই স্বাচ্ছন্দ বোধ করতে দেখা যায় এই প্রভাবশালী নেতাকে।

এমনকি গত বছর একটি ওয়াজ মাহফিলে তার ওয়াজ শুনে বখসিসও দিয়েছিলেন একজন শ্রোতা। তারই ধারাবাহিতায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান এবার তার নফল নামাজ আদায়ের বিষয়টি জানিয়েছেন।

গত ২৬ ডিসেম্বর সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকায় আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের হুশিয়ার দেয়া এক শ্রেণির মাওলানাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আমাদেরকে আপনারা ইসলাম বুঝান আমরা কুরআন পড়ি না? ২২ বছর ধরে তাহাজ্জুদ ছাড়ি নাই।’

তিনি বলেন, প্রতিদিন ৭০ থেকে ৮০ রাকাত নফল নামাজ বেশি পড়ি আল্লাহর রহমতে। দুবেলা কুরআন শরীফ পড়ি। ধর্ম সবার। ধর্মের জবাব আল্লাহর কাছে দিব; আর কারও কাছে না।

তিনি আরও বলেন ‘কারও কাছ থেকে লাইসেন্স দিতে হবে আমার ? আমি মুসলমান, আমি মুসলমান না। আপনারা লাইসেন্স দিবেন আমাদের। আল্লাহ আপনাদের হেদায়েত করুক।’

তিনি বলেন, যারা রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় কোনোদিন ভোটের মাধ্যমে আসতে পারবে না, তারা এবার বাংলাদেশের ভৌগোলিক অবস্থান নিয়ে খেলা শুরু করেছে। তারা ভাস্কর্য ভাঙার সাহস দেখায়। আমার কাছে লজ্জা লাগে, নিজের কাছে নিজের ঘৃণা লাগে।

শামীম ওসমান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ করি, সরকারি দল করি, দেখলাম কথা কেউ শুরু করেনি। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে হাত দিলে সাধারণ মানুষ হিসেবে লড়াই করবো। দেখবো কতটুকু মায়ের বুকের দুধ খেয়েছো তোমরা। আমাদের আপনারা ইসলাম বোঝান, আমরা কোরআন পড়ি না?’

এদিকে শামীম ওসমানের এই বক্তব্যের ভিডিওটি ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে ভার্চুয়াল দুনিয়ায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মাত্র ২৪ঘন্টায় প্রায় লাখের কাছাকাছি পৌছে গেছে ভিডিওটিও দর্শক সংখ্যা।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: