পিতার বিরুদ্ধে মেয়েকে কুকর্মের অভিযোগ, ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা!

পিতার বিরুদ্ধে মেয়েকে কুকর্মের অভিযোগ, ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা!

কক্সবাজার শহরের কলাতলী চন্দ্রিমা এলাকায় পিতার বিরুদ্ধে নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এতে ওই কিশোরী ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় পিতা কামাল হোসেন (৩৫) এর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে ৪ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা করেছেন ভিকটিমের মা। যার মামলা নং-জি আর ৫৩৩/২১।

এ মামলার একমাত্র আসামি কামাল হোসেনকে শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মুনীর-উল-গীয়াস মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এসআই নাজমুন নাহার খানম মামলাটি তদন্ত করছেন।

অভিযুক্ত কামাল কক্সবাজার সদরের চৌফলদন্ডির বাসিন্দা। বর্তমানে পূর্ব কলাতলীর চন্দ্রিমা মাঠ এলাকায় বসবাস করে। পেশায় সে সিএনজি চালক। জানা গেছে, শনিবার ১৬৪ ধারা মতে মামলার বাদি ও ভিকটিমের জবানবন্দী গ্রহণ করেছেন কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের বিচারক হেলাল উদ্দিন।

জবানবন্দী শেষে ভিকটিমকে মায়ের জিম্মায় দেন বিচারক। মামলার বাদি ভিকটিম কিশোরীর মা জানান, গত ১০ এপ্রিল দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে ১৩ বছর বয়সী তার প্রথম মেয়েকে ধর্ষণ করে পিতা (বাদির স্বামী) কামাল হোসেন। পরে আরো বেশ কয়েকবার একই ঘটনা ঘটায়। ঘটনা প্রকাশ না করতে মেয়েকে ভয়ভীতি, হুমকিও প্রদান করে।

ইতোমধ্যে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে মেয়ে। ঘটনা জানাজানি হলে থানায় মামলা করেন কিশোরীর মা। ভিকটিম মেয়ে স্থানীয় একটি স্কুলে ৫ম শ্রেণির ছাত্রী। বাদি পক্ষের প্রধান আইনজীবী আবদুল হালিম জানান, নিজের মেয়েকে ধর্ষণের মতো লজ্জাজনক ও ঘৃণিত কাজ করলো জন্মদাতা পিতা কামাল হোসেন। এ ঘটনায় আসামি পিতাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনার বিষয়ে বিজ্ঞ আদালতকে বিস্তারিত জবানবন্দি দিয়েছে ভিকটিম ও বাদি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *