পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা লাগার ঘটনায় ফেরি চালক সাময়িক বরখাস্ত

পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা লাগার ঘটনায় ফেরি চালক সাময়িক বরখাস্ত

পদ্মা সেতুর ১০ নম্বর পিলারে রো রো ফেরি জাহাঙ্গীরের ধাক্কার ঘটনায় ফেরির চালক ও সুকানীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

সোমবার (৯ আগস্ট) রাতে বিআইডব্লিউটিসি’র চীফ পারসোনাল ম্যানেজার মানসুরা আহমেদ স্বাক্ষরিত পৃথক অফিস আদেশে বরখাস্ত ও তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।বিআইডব্লিউটিসি’র অফিস আদেশ থেকে জানা যায়, ভারপ্রাপ্ত মাস্টার দেলোয়ারুল ইসলাম ও হুইল সুকানী মোঃ আবুল কালাম আজাদ সতর্কতা ও দক্ষতার সাথে ফেরি না চালানোয় তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। দক্ষতার সাথে ফেরি চালালে এই দুর্ঘটনা এড়ানো যেতো। বরখাস্তকালীন সময়ে তাদের খোরাকি ভাতা দেওয়া হবে এবং তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা যথাসময়ে রুজু করা হবে।

অন্যদিকে, পৃথক অফিস আদেশে বিআইডব্লিউটিসি’র পরিচালক (কারিগরি) মোঃ রাশেদুল ইসলামকে আহবায়ক করে পাঁচ সদস্যের কমিটি করা হয়েছে। কমিটির বাকী সদস্যরা হচ্ছেন বিআইডব্লিউটিসি’র জিএম (মেরিন) ক্যাপ্টেন মুহাম্মদ হাসেমুর রহমান চৌধুরী, বিআইডব্লিউটিএ’র পরিচালক (নৌসংরক্ষণ ও পরিচালন) মোঃ শাহজাহান, বিআইডব্লিউটিসি’র এজিএম (ইঞ্জিনিয়ার) মোঃ রুবেলুজ্জামান ও বিআইডব্লিউটিসি’র এজিএম (মেরিন) আহম্মেদ আলী। কমিটিকে তিন দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সোমবার (৯ আগস্ট) সন্ধ্যায় মাদারিপুরের বাংলাবাজার ঘাট থেকে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে আসার পথে পদ্মা সেতুর ১০ নম্বর পিলারে ধাক্কা দেয়। ধাক্কা খাওয়ার পর একটি পণ্যবাহী যান ফেরিতে থাকা অপর একটি প্রাইভেট কারের উপর পড়ে যায়। এতে প্রাইভেট কারটি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এ ঘটনায় ৫-৬ জন আহত হয়। ধাক্কা খেয়ে ফেরির তলায় ফাটলও দেখা দেয় এবং পানি উঠে। এ ঘটনায় মুন্সীগঞ্জের লৌহজং থানায় একটি জিডিও করে পদ্মা সেতু কর্তৃপক্ষ।

এর আগেও এই নৌরুটে একাধিক ফেরি পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা দেয়। গত ২৩ জুলাই সকাল সাড়ে নয়টার দিকে রো রো ফেরি শাহজালাল পদ্মা সেতুর ১৭ নম্বর পিলারে এবং ২০ জুলাই রো রো ফেরি শাহ মখদুমও পদ্মা সেতুর ১৬ নম্বর পিলারের সাথে ধাক্কা দেয়। ঐ সকল ধাক্কার ঘটনায় বিআইডব্লিটিসি তদন্ত কমিটি করে। এমনকি মাদারিপুরের শিবচর থানায় জিডিও করা হয়।

শেয়ার করুন