নোয়াখালীতে ১৪৪ ধারা ভেঙে মিছিল, নিয়ন্ত্রণে রাস্তায় পুলিশ

নোয়াখালীতে ১৪৪ ধারা ভেঙে মিছিল, নিয়ন্ত্রণে রাস্তায় পুলিশ

আওয়ামী লীগের তিন পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি আহ্বানকে কেন্দ্র করে নোয়াখালীর মাইজদী উপজেলায় আজ সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন। এদিকে, উপজেলায় জারি করা ১৪৪ ধারা ভেঙে সাংসদ একরামের সমর্থকরা মিছিল বের করেছে বলে জানা গেছে। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনার জন্য পুলিশ লাঠিচার্জ করেন। সোমবার সকালে এই ধারা ভেঙে মিছিল বের করা হয়।

১৪৪ ধারা নিয়ে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান বলেন, একই দিন ৩ পক্ষের কর্মসূচি ঘোষণা করায় অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে এবং জনগণের জানমালের নিরাপত্তায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত মাইজদী, দত্তেরহাট ও সোনাপুর এলাকায় সব ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এর আগে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে গতকাল রোববার বিকেলে তিন গ্রুপ পৃথক স্থানে মিছিলের আয়োজন করার পর ত্রিমুখী সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া হয়। এতে কয়েকজন আহত হন।

পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ত্রিমুখী সংঘর্ষ চলাকালে শহরজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এতে দুই ঘণ্টার বেশি সময় পর্যন্ত যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে শহরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে।

জানা গেছে, সদর আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী, পৌর মেয়র ও শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদ উল্লাহ খান সোহেল ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শিহাব উদ্দিন শাহীনের লোকজনের মধ্যে এ সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া হয়। সংঘর্ষ চলাকালে কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাঁদের নোয়াখালী ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *