নিউজিল্যান্ড থেকে ফিরে অভিজ্ঞতা শোনালেন মুমিনুল

এবারের মতো ঝক্কি-ঝামেলা মাথায় নিয়ে বোধ হয় এর আগে কোনো সফরেই যেতে হয়নি বাংলাদেশকে। দল হিসেবে টানা ব্যর্থতা, তার ওপর কোয়ারেন্টাইনের বাড়তি প্রটোকল।

নিউজিল্যান্ডে গিয়ে স্পিন কোচ রঙ্গনা হেরাথ করোনা পজিটিভ হওয়ার পর সফরকারিদের কোয়ারেন্টাইনের সময় আরও বাড়িয়ে দেওয়া হয়। সবমিলিয়ে ভীষণ অস্বস্তিতে ছিল মুমিনুল ব্রিগেড।

কিন্তু মাঠের পারফম্যান্সে সবাইকে চমকে দিয়েছে তারা। সব বাধা পেরিয়ে প্রথম টেস্টেই তুলে নেয় ইতিহাসগড়া এক জয়। যে জয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে পুরো ক্রিকেট বিশ্বেই।

কিভাবে সম্ভব হলো এই অসাধ্য সাধন? নিউজিল্যান্ড থেকে দেশে ফিরে আজ গণমাধ্যমের সামনে সেই অভিজ্ঞতা শোনালেন টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক। তার মতে, কোয়ারেন্টাইনটাই দলের জন্য আশীর্বাদ হয়েছিল এবার।

মুমিনুল বলেন, ‘আমার মনে হয় আমাদের দলটা রেজাল্ট করার জন্য কোয়ারেন্টাইন আশীর্বাদ হয়ে আসছে। আমরা ১১ দিন বন্দি ছিলাম, হঠাৎ করে যখন বের হলাম। একসঙ্গে সবাই কাজ করেছি। তাতে টিম বিল্ড আপ হয়েছে।’

সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতো সিনিয়ররা ছিলেন না। তারুণনির্ভর দল নিয়ে এই টেস্ট জয় কি প্রত্যাশাটা আরও বড় করে দেবে?

মুমিনুলের কৌশলী উত্তর, ‘একটা টেস্ট ম্যাচে হয়তো জুনিয়র-সিনিয়র সবাই পারফর্ম করেছে। এক টেস্টে সব বিচার করা কঠিন। সিনিয়র খেলুক বা জুনিয়র, দিনশেষে দল হিসেবে খেলতে না পারলে ফল পাওয়া কঠিন।’