নাজিরপুরে আপন দুই বোনের এক স্বামী

এ যেন সিনেমার গল্পকেও হার মানায়। দুই বোনের এক স্বামী। অবিশ্বাস্য হলেও ঘটনা সত্য। পিরোজপুরের নাজিরপুর সদর ইউনিয়নের কাঁঠালিয়া এলাকায় একে একে দুই বোনকে বিয়ে করেছেন সুজিত গাইন নামে এক যুবক। তিনি পেশায় একজন ডেকরেটর ব্যবসায়ী।

জানা যায়, উপজেলার কাঠাঁলিয়া গ্রামের মৃত মাস্টার কেদারনাথ গাইন এর ছেলে সুজিত গাইনের সাথে উপজেলার ঘোপেরখাল গ্রামের কালিপদ সিকদারের মেয়ে প্রথমে রূপালি গাইনকে (২৫) বিয়ে করেন ৫ বছর আগে। এ সংসার জীবেন তাদের দুই সন্তানও হয়। প্রথম সন্তানের বয়স ৪ বছর এবং দ্বিতীয় সন্তানের বয়স ২ বছর।

সম্প্রতি আবারও তিনি তার শ্যালিকা অর্থাৎ প্রথম স্ত্রীর আপন ছোট বোন স্বর্ণালীকে (১৮) বিয়ে করেন। গত ২৬ ফেব্রæয়ারী দ্বিতীয় বিয়ের পর একই ঘরে সংসার পেতেছেন সুজিত গাইন।

মেয়ের ভাই জয়দেব সিকদার জানায়, সুজিত গাইনের সাথে আনুমানিক ৫ বছর আগে আমার মেজ বোনের বিয়ে দেই, সেই সুবাদে আমার ছোট বোন ভগ্নিপতির বাড়িতে থেকে পড়াশুনা করত । ভগ্নিপতির বাড়িতে থাকায় আস্তে আস্তে স্বার্নালীর সাথে সুজিতের প্রেম ভালবাসা সৃষ্টি হয়, আমরা জানতে পেরে আমার বোনকে আমাদের বাড়ীতে নিয়ে যাই। পরবর্তীতে স্বার্ণালীকে খুঁজে না পাওয়ায় আমার বাবা নাজিরপুর থানায় ভগ্নিপতি সুজিত গাইনের নামে অভিযোগ করেন।

এবিষয়ে সুজিত গাইনের প্রথম স্ত্রী রূপালী গাইনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, এ বিয়ে আমি মেনে নিয়েছি আমার ছোট বোনকে নিয়ে একই ঘরে সংসার করব আমার কোন আপত্তি নাই।

সুজিত গাইনের কাকা গজেন গাইন বলেন তারা বিবাহ করেছে শুনেছি কিন্তু আনুষ্ঠানিক ভাবে এখনও বিয়ে হয় নাই, দিন তারিখ দেখে আমরা আনুষ্ঠানিক বিয়ের তারিখ ধার্য্য করব।

এ ব্যাপারে সুজিত গাইনের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য তাহার মুঠোফেনে একাধিকবার ফোন দিলেও তাকে পাওয়া যায় নাই।

নাজিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হুমায়ুন কবির জানান, মেয়ের বাবা একটা অভিযোগ দিয়েছে আমরা অভিযোগের ভিত্তিতে উভয়কে থানায় হাজির করি। তারা উভয়ই এ বিয়ে মেনে নিয়েছে এবং ঘর সংসারও করবে কেউ কোন মামলা করবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.