নাঈম-শাবনাজের পুকুরে এত বড় মাছ!

ঢাকাই সিনেমা’র নব্বই দশকের তুমুল জনপ্রিয় জুটি নাঈম ও শাবনাজ। তারা জুটি বেঁধে বেশ কয়েকটি সফল সিনেমা উপহার দিয়েছিলেন। এখনো দর্শকের হৃদয়ে সেই মুগ্ধতা রয়ে গেছে। তাই সিনেমা থেকে দূরে সরে গেলেও সবার মনে তাদের প্রতি ভালোবাসা এখনো সতেজ।

বিয়ের পর রূপালি জগত থেকে দূরে সরে যান নাঈম ও শাবনাজ। গত দুই দশক ধরেই একান্ত নিজেদের মতো সংসার করছেন। তাদের সুখী দাম্পত্যের চিত্র প্রশান্তি ছড়ায় ভক্তদের মনে।

নাঈম-শাবনাজের বেশিরভাগ সময় কাটে টাঙ্গাইলে নাঈমের গ্রামের বাড়িতে। সেখানে কৃষিকাজেই মন দিয়েছেন নায়ক। কখনো ক্ষেতে গিয়ে সবজি ফলানোয় ব্যস্ত, আবার কখনো পুকুরের ধারে তিনি পুরোদস্তুর মৎস্যচাষী।

রোববার (৯ জানুয়ারি) ফেসবুকে কয়েকটি ছবি শেয়ার করেছেন নাঈম-শাবনাজ। যেখানে দেখা গেল, পুকুরে জাল ফেলে মাছ ধ’রা হয়েছে। মাছগুলোও বেশ বড় আকারের। ওজনে ৫-১০ কেজির মতো হবে।

নাঈম বলেছেন, ‘আল্লাহ্‌র রহমতে মাছ চাষে এবারও সফল হবো আশা করছি।’

একসময়ের ঝলমলে দুনিয়া ছেড়ে এমন সাধারণ জীবন বেছে নেওয়ায় নাঈম-শাবনাজের প্রতি মুগ্ধ সাধারণ মানুষ। মাছচাষের ছবিগুলোর কমেন্ট বক্সেও সেই মুগ্ধতার আঁচ পড়েছে। কেউ লিখেছেন, ‘বাহ ভালো লাগল। আমাদের উচিৎ কৃষিক্ষেত্রে সবাইকে এগিয়ে আসা’, আরেক অনুসারী মন্তব্য করেছেন, ‘একজন সফল অ’ভিনেতা ও একজন সফল উদ্যোক্তা, কর্মসংস্থানকারী। ভালোবাসা, ভালোলাগার মানুষ নাঈম ভাই ও শাবনাজ আপা’।

উল্লেখ্য, নাঈম ও শাবনাজ জুটির অ’ভিষেক হয় ১৯৯১ সালের ‘চাঁদনী’ সিনেমা’র মাধ্যমে। যেটি পরিচালনা করেছিলেন এহতেশাম। সুদর্শন চেহারা ও অ’ভিনয়ের গুণে তারা অল্প সময়েই তারকা খ্যাতি পান। এরপর শফিউল আলম পরিচালিত ‘বিষের বাঁশি’ সিনেমায় অ’ভিনয় করতে গিয়ে প্রে’মে জড়ান তারা। ১৯৯৪ সালের ৫ অক্টোবর বিয়ে করেছিলেন এ যুগল