নকশায় নতুন ভুল, মেট্রোরেলের খরচ ছাড়িয়ে যাচ্ছে পদ্মা সেতুকেও

দেশের অন্যতম ব্যয়বহুল প্রকল্প মেট্রোরেল। এর আগে একাধিকবার নকশায় সমস্যা দেখা দেওয়ার কারণে এই প্রকল্পের খরচ বেড়েছে। এবার আরও একদফা সমস্যা দেখা দেওয়ায় নতুন করে যে খরচ যোগ হয়েছে তাতে প্রকল্পটি ছাড়িয়ে যাচ্ছে পদ্মা সেতুর খরচকেও। এই তথ্য জানিয়েছে প্রকল্প বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি (ডিএমটিসিএল)।

ডিএমটিসিএল-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন সিদ্দিক বলেন, বর্তমানে যে নকশা রয়েছে, সে অনুযায়ী স্টেশনে ঢোকা ও বেরুনোর পয়েন্টগুলো ব্যবহারের জন্য সুবিধাজনক হবে না। এগুলো আরও প্রশস্ত করতে হবে। এছাড়া স্টেশনের বাইরের ফুটপাথগুলো আরও চওড়া করলে যাত্রীদের জন্য বেশ আরাম’দায়ক হবে। তাই নকশা পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এর ফলে মেট্রোরেল চালুর ক্ষেত্রে অ’তিরিক্ত অর্থ যেমন ব্যয় হবে, তেমনি সময়ও লাগবে বেশি। এর আগেও কয়েকদফা এভাবে সময় ও অর্থ বেড়েছে। এবার নতুন করে কত খরচ যোগ হবে- এমন প্রশ্নের জবাবে এম এ এন সিদ্দিক বলেন, অ’তিরিক্ত ১১ হাজার ৪৮৭ কোটি টাকা চাওয়া হয়েছে।

বহুল আকাঙ্ক্ষিত পদ্মা সেতুতেও একাধিকবার খরচ বাড়ানো হয়েছিল। অবশেষে সেই প্রকল্প থেমেছে ৩০ হাজার ১৯২ কোটি টাকায়। মেট্রোরেলের ক্ষেত্রে নতুন করে যে খরচ চাওয়া হয়েছে, সেটা যোগ হলে মোট খরচ দাঁড়াবে ৩৩ হাজার ৪৭২ কোটি টাকা। অর্থাৎ, খরচের দিক থেকে মেট্রোরেল ছাড়িয়ে যাচ্ছে পদ্মা সেতুকেও।

স্টেশনে ঢোকা ও বেরুনোর পয়েন্ট এবং সামনের ফুটপাথ প্রশস্ত করার বিষয়টি নকশার শুরুতে কেন বিবেচনায় নেওয়া হয়নি, এই প্রশ্নের জবাবে ডিএমটিসিএল-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, মেট্রোরেল আমাদের দেশে একটি নতুন ধারণা। তাই সবকিছু বুঝে উঠতে আমাদের বেশ সময় লেগে গেছে। প্রকল্পটির ক্ষেত্রে আম’রা ‘ট্রায়াল অ্যান্ড এরর’-এর ভেতর দিয়ে যাচ্ছি