দুপুরে বরযাত্রী, গায়ে হলুদ দিয়ে রাতেই মিলল বরের নিথর দেহ

দুপুরে বরযাত্রী, গায়ে হলুদ দিয়ে রাতেই মিলল বরের নিথর দেহ

চারিদিকে আনন্দের মহল। বিয়ে উপলক্ষে সাজানো হয়েছে পুরো বাড়ি। আত্মীয়-স্বজনও এসেছেন বিয়ে বাড়িতে। সব প্রস্তুতিই প্রায় শেষ। দুপুরে কনের বাড়িতে বর সেঁজে যাওয়ার কথা ২৬ বছর বয়সী আল আমিনের। কিন্তু সেই বিয়ের সাজানো আঙ্গিনাতেই শেষ বিদায়ের জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হলো বরের। গতকাল বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) বগুড়া‌ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার দেউলী ইউনিয়নের রহবল দক্ষিণপাড়া গ্রামে এই হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটে।

গ্ৰামের আলম আকন্দের ছেলে আল আমিন বিয়ের আগের রাতে গায়ে হলুদ দেয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়ে। রাতেই কোনো একসময় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন আল আমিন। বৃহস্পতিবার সকালের সূর্য ওঠার আগেই পরিবারের লোকজন দেখতে পায় আল আমিন আর নেই। সকালে বিয়ে বাড়িতে শুরু হয় কান্নার রোল।

একই উপজেলার রায়নগর ইউনিয়নের টেপাগাড়ি গ্রামের একটি মেয়ের (১৮) সঙ্গে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিয়ে সম্পন্ন হবার কথা ছিল। পরিবার আত্মীয়স্বজনসহ কনের বাড়িতেও নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

বরের বাবা আলম আকন্দ জানান, আল আমিনের মৃত্যুর ব্যাপারে কারো বিরুদ্ধে আমাদের কোনো অভিযোগ নেই। দেউলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাই প্রধান আলামিনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে আল আমিনের নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে। তার এই অকাল মৃত্যুতে পুরো গ্ৰামেই শোকের ছায়া নেমে এসেছে।‌‌

শেয়ার করুন