দুধের সঙ্গে রসুন খেলে এত উপকার পাওয়া যায়

দু’ধের পুষ্টিগুণ সম্প’র্কে সবাই কম-বেশি জানি। সব ব’য়সীদের জন্যই দু’ধ একটি উপকারী পানীয়। এটি আমাদের শ’রীরে শ’ক্তি জোগায়।এদিকে রসুনে রয়েছে অ্যা’ন্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান। কাঁচা রসুন উচ্চ র’ক্তচা’প কমাতে দারুণভাবে সাহায্য করে। তাই দু’ধের স’ঙ্গে রসুন মিশিয়ে খেলে অনেক উপকার পাওয়া যায়।

এছাড়া, দু’ধের স’ঙ্গে রসুন মিশিয়ে খেলে তা শ’রীর থেকে বি’ষাক্ত পদার্থ দূর করতে সাহায্য করে। এছাড়া শ্বাসতন্ত্রকে ভালো রাখে। রাতে ঘুমানোর আগে দু’ধের মধ্যে রসুন দিয়ে খেলে স্বা’স্থ্যের পক্ষে ভালো।অ্যাজমা, কফ, নিউমোনিয়া স’মস্যায়: যাদের অ্যাজমা, কফ, নিউমোনিয়ার স’মস্যা রয়েছে প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে দু’ধে রসুন মিশিয়ে খেলে স’মস্যা দূর হয়।

কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে: দু’ধের স’ঙ্গে রসুন মিশিয়ে খেলে খা’রাপ কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। ভালো কোলেস্টেরল বাড়াতেও সাহায্য করে।জন্ডিসের প্রতিকার: রসুন-দু’ধ জন্ডিসের ক্ষেত্রে ভালো কাজ করে। জন্ডিসে আ’ক্রান্ত হলে দু’ধের স’ঙ্গে রসুন মিশিয়ে খেতে পারেন। এতে উপকার মিলবে।

বাতের ব্য’থা কমা: গাঁটে গাঁটে ব্য’থা অনেক কমিয়ে দেয় এই রসুন ও দু’ধ। এমনিতেই গরম দু’ধ ব্য’থা কমায়, সেই স’ঙ্গে রসুন প্রদাহ থেকে রক্ষা করে। সব মিলিয়ে খুব ভালো উপকার পাওয়া যায়।অনিদ্রার স’মস্যা: হাজার চেষ্টা করলেও রাতে ঠিক করে ঘুম হয় না। এক গ্লাস রসুন-দু’ধ খেয়ে নিন। স’মস্যা দূর দয়ে যাবে। ঘুম আসবে সহজেই।

চিরকা’ল নিজের যৌ’ব’ন ধ’রে রাখতে এই ‘টো’টকা টা করে নিন, পুরো ম্যা’জিক মনে হবে
বয়স একটা এমন ব’স্তু যা সকলে নিজের কাছে ধরে রাখতে চায়। ছাড়তে চায়না। দি’নের সাথে সাথে ব’য়স বাড়’বেই এবং তার ছাপ আমা’দের শ’রী’রে প’ড়বেই। এমনটাই স্বভাবিক। কিন্তু প্রকৃতির সব নিয়’ম এবং স্বভাবিকত্ব কে মানুষ কবেই বা পুরোপু’রি গ্রহণ করে’ছে? বরং বরাব’রই হেঁ’টেছে উল্টো’দিকে।’
v

বয়স বাড়লে যৌ’বন’ ধীরে ধীরে দূ’রে দূরে সরে যায়। কিন্তু এই বি’ষয়টা অনেকের না’পস’ন্দ। তাঁরা চান যে যৌ’ব’ন’কে স’বস’ময় নি’জে’র ‘কাছে রেখে দি’তে। আর এই কা’জ ক”রতে গেলে কোন কোন খা’বার গু’লো’কে বেশি করে খেতে হবে এক’বার দেখে নিন চট করে।

চ’কোলেট: প্রথমেই চ’কো’লেটের নাম দেখে হয়তো অ’বাক হলেন অনেকেই। তবে প্রতি’দিন চ’কোলে’ট, কো’কো বা ওই ‘জাতী’য় কিছু খেতে পা’রলে উচ্চ’ র’ক্ত’চাপ, কি’ডনির স’মস্যা এমনকি ডিমে’নশি’য়ার মতো অ’সুখ থেকে নি’জেকে দূরে রাখা স’ম্ভব’ হবে। শ’রী’রে রক্ত চলা’চল স্বাভা’বিক রাখ’তেও সা’হা”য্য করে চকো’লেট। আর ত্ব’কের বলি’রেখা রুখতে চকো’লেট ফে’শিয়া’লের কথা তো অনে”কে’ই শুনেছেন।

বাদাম: চে’হারা’য় তারুণ্য ধরে রাখতে বা’দামের জুড়ি নেই। বাদাম বা বিশে’ষ করে আ’খরো’টে ওমেগা-৩ ফ্যা’টি অ্যা’সি’ড আছে যা ত্বককে মসৃণ করে ভিতর থেকে উ’জ্জ্ব’ল করে তোলে। আ’খরোটে কোলে’স্টের”লের মাত্রা খুব কম থাকে। তাই প্রতিদিনে’র খাদ্য তালি’কায় আপ’নি রাখ’তে পারে’ন যে কোনও বাদাম।

টমেটো: টমে’টোতে রয়েছে অ্যান্টি’অক্সি’ডেন্ট উপাদান লাই’কোপে’ন যা বি’ভিন্ন চ’র্মরো’গ প্র’তি’রোধ করতে খু’বই কার্য’কর। এটি ত্ব’ক’কে সূ’র্যের ক্ষ’তি’কর র’শ্মি থেকে র’ক্ষা ক’রতে সাহা’য্য করে।অলিভ অয়েল: অলিভ অ’য়েল প্রতিদি’ন রা’ন্নায় ব্যবহার করুন। এ ছাড়া এক চা’মচ অলিভ অয়ে’ল নি’য়ে প্রতিদিন দু’বার ‘করে ত্বকে মা’লিশ ক’রুন। এটি ত্ব’কের শু’ষ্ক’তা দূর করে এবং সেই স’ঙ্গে যে কোনও দাগ দূ’র করতে সাহায্য করে।

টমেটো
পালং শাক: পালং শা’কে রয়েছে ফাই’বার, পটা’শি’য়েম, ভিটা’মিন এবং মিনারেল। এতে প্রচুর পরি’মাণে অ্যান্টি অক্সিডে’ণ্ট পাওয়া যায় যা দেহের ফ্রি র‍্যা’ডিকেল ধ্বং’স করে দেয় এবং ত্বকে বয়’সের ছাপ প’ড়তে দেয় না।

হলুদ: হলুদে আছে অ্যা’ন্টি’ অ’ক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি ইনফ্লামমেটরী উপাদান যা হজ’মশ’ক্তি বাড়াতে’ সাহা’য্য করে। আ’র তার স’ঙ্গে সঙ্গে বয়’সে’র ছাপ পড়া রোধে বিশেষ সাহা’য্য করে থাকে।ডালিম: দিন’টা শুরু করু’ন এক গ্লাস ডালি’মের রস খেয়ে। এটি আপ’নার ত্ব’কে বলিরেখা পড়া রোধ ক’রবে। ডালিমে আছে অ্যা’ন্টি অ’ক্সিডে’ন্ট যা ত্ব’কের নম’নীয়’তা বজা’য় রেখে’ তাকে টা’নটান রাখতে সাহায্য করে।

ব্রকো’লি: ডিট’ক্সিফি’কেশন খুবই গুরু’ত্বপূ’র্ণ উপা’দান তারুণ্যে উজ্জ্ব’ল ত্বকে’র জন্য। ব্রকো’লিতে প্রচুর পরিমাণে ডিট’ক্সিফি’কেশন আছে যা দেহ থেকে ক্ষ’তি’কর উপাদা’ন বের করে দিয়ে কোষকে সতে’জ রাখে। স’প্তাহে দুই বা তিন দিন খাদ্য তা’লিকায় ব্র”কোলি রাখুন। উ’পকা’র পাবেন।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: