‘দুই পয়সার মেয়ে’ কোন হিসেবে বলল, প্রশ্ন দীঘির

প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। শি’শু শিল্পী থেকে নায়িকা হিসেবে আত্মপ্র’কাশ ক’রেছেন। মু’ক্তির দিক থেকে তার প্রথম সিনেমা ‘তুমি আছো তুমি নেই’। গত ১২ মা’র্চ মু’ক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। মু’ক্তির আগে সিনেমাটি নিয়ে ব্যা’পক জল ঘোলা করেছিলেন সিনেমাটির পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু এবং প্রযোজক সিমি ইসলাম কলি।

দীঘির একটি মন্তব্যের কারণে তার ওপর বেশ ক্ষেপেছিলেণ নির্মাতা ঝন্টু। সিনেমাটি মু’ক্তির আগে এক সাক্ষাৎকারে দীঘিকে ‘দুই পয়সার মেয়ে’ বলে উল্লেখ করেছিলেন তিনি। গত ১১ মা’র্চ এক সাক্ষাৎকারে ঝন্টু বলেছিলেন, ‘ওর কথা শুনে মনে হয় মেয়েটা মোটামুটি লেখাপড়া করছে। সুন্দর সুন্দর ইংরেজি শব্দগুলো ব্যবহার করে। জ্ঞান নেই তার, জ্ঞান থাকলে নিজে’র ছবি চলবে না এই কথা কেউ বলে!’

নিজে’র সিনেমা’র নায়িকাকে ‘দুই পয়সার মেয়ে’ বলা কতটা সমীচীন? এমন প্রশ্নের উত্তরে ঝন্টু বলেছিলেন, ‘দুই পয়সার মেয়ে না হলে এমন কথা বলতে পারে না। চলচ্চিত্রের জন্য সে দুই পয়সার। লেট মি ফিনিস, দুই পয়সার মেয়ে বলছি এই জন্য, চলচ্চিত্রের জন্য সে দুই পয়সার।’

এবার এ প্রস’ঙ্গে মুখ খু’লে ছেন দীঘি। কথা বলেছেন একটি টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে। তিনি বলেন, ‘এটা আ’সলে কীভাবে? আম’রা তো কাউকে এবিউজ ক’রতে পারি না। উনি (ঝন্টু) আমাকে পার্সোনাল অ্যাটাক ক’রেছেন। আমি খুব বেশি কষ্ট পেয়েছি জিনিসটাতে। সিনেমা নিয়ে মন্তব্য করা পর্যন্ত ঠিক ছিল। কিন্তু ফ্যামিলিতে কেন গেল? আমি এ রকম কোনে ফ্যামিলি থেকে বিলং করি না যে, আমাকে দুই পয়সা বললে আমা’র আশপাশের মানুষ চুপ থাকবে।’

শি’শুশিল্পী হিসেবে ৩০টি সিনেমায় অভিনয় ক’রেছেন দীঘি। পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও। নায়িকা হিসেবে দীঘির প্রথম সিনেমা ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’। ২৬ মা’র্চ মু’ক্তি পাবে এটি। আর মু’ক্তির দিক থেকে দীঘির প্রথম সিনেমা ‘তুমি আছো তুমি নেই।’ এ ছাড়া দীঘি অভিনয় করছেন ‘বঙ্গব’ন্ধু’ বায়োপিকে। স’ম্প্রতি তিনি শেষ ক’রেছেন ‘শেষ চিঠি’ ওয়েব ফিল্মের।

শেয়ার করুন