দানব গ‌তি‌তে পৃথিবীর দি‌কে ধেয়ে আসছে বিশাল গ্রহাণু!

২০২০ সালে পৃথিবীর উপর থেকে সংকট যেনো কাটছেই না। একের পর এক বিপর্যয়ে বিপর্যস্ত গোটা দুনিয়া। চলমান করোনা মহামারি, তার মধ্যে নানা প্রাকৃতিক বিপর্যয়ও সমানতালে পাল্লা দিচ্ছে। ভয়াবহ বন্যার কবলে বাংলা‌দেশ, চিন ও ভারত।

এমন পরিস্থিতিতে এবার পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসতে চলেছে বিশাল আকারের গ্রহাণু। এই বিষয়ে ইতোমধ্যে সতর্কতা জারি করেছে নাসা।

নাসা জানিয়েছে, গ্রহাণু ২০২০ এনডি পৃথিবীর খুব কাছ দিয়েই যাবে। যদি ভাবেন বিপদ এখানেই শেষ, তাহলে ভুল হবে। কারণ এই গ্রহাণুর পরপরই আরও একটি গ্রহাণু আগামী রোববার পার করবে পৃথিবীকে। গোটা বিশ্বের এই সংকটময় সময়ে এই আসন্ন গ্রহাণু নিয়ে চিন্তিত বিজ্ঞানীরা।

নাসা জানিয়েছে, ২৪ জুলাই যে গ্রহাণুটি এগিয়ে আসছে তা আয়তনে বিশালাকার। এমনকি লন্ডন আইয়ের চেয়েও দেড়গুণ বড়। বিজ্ঞানীরা এই গ্রহাণুর আগমনকে ঝুঁকিপূর্ণ বলেই মনে করছেন। ১৭০ মিটারের অতিকায় গ্রহাণু পৃথিবীর ০.০৪৩ অ্যাস্ট্রনমিক্যাল ইউনিট (এইউ) দূরত্বের মধ্যে চলে আসবে। এক এইউ (১৪৯,৫৯৮,০০০ কিমি) পৃথিবী ও সূর্যের মধ্যে দূরত্বের সমান। গ্রহাণুটির গতিবেগ ঘণ্টায় ৪৮ হাজার কিলোমিটার। তবে নাসার বিজ্ঞানীরা একথা জানিয়ে আশ্বস্ত করেছেন, পৃথিবীর একদম কান ঘেঁষে পার করে যাবে গ্রহাণুটি।

এর আগে জুন মাসে পৃথিবীকে লক্ষ্য করে প্রথম গ্রহাণুটি আসে ৬ জুন শনিবার ভোর ৩টা ২০ মিনিটে। ওই সময় গ্রহাণুটি পৃথিবীর সবচেয়ে কাছাকাছি ছিল। পৃথিবী থেকে মাত্র ৫.০৯ মিলিয়ন কিলোমিটার দূর দিয়ে যায় গ্রহাণুটি। প্রথম গ্রহাণুটিকে (Asteroid 2002 NN4) নামে চিহ্নিত করেছিলেন বিজ্ঞানীরা। এটির ব্যাসার্ধ ৫৭০ মিটার। পাঁচটি ফুটবল মাঠ বা দুবাইয়ের এনটিসার টাওয়ার ঢুকে যেতে পারত এর ভিতর। সেই গ্রহাণুটিরও গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৪০,১৪০ কিলোমিটার।

এরপর জুন মাসেই পৃথিবীর দিকে আবার ছুটে আসে দ্বিতীয় একটি গ্রহাণু। ৮ জুন সোমবার, বিকেল ৩.৪০ মিনিটে পৃথিবীর সবচেয়ে কাছাকাছি ছিল এটি। সেই গ্রহাণুটিকে (Asteroid 2013 XA22) হিসেবে চিহ্নিত করেছিলেন বিজ্ঞানীরা। পৃথিবী থেকে ২.৯৩ মিলিয়ন কিলোমিটার দূর দিয়ে যায় সেই গ্রহাণুটি। এর ব্যাসার্ধ ১৬০ মিটার। ঘণ্টায় গতিবেগ ছিল ২৪,০৫০ কিলোমিটার।

একই মাসে পৃথিবীর দিকে ছুটে আসে তৃতীয় গ্রহাণু Asteroid 2010 NY65. প্রায় এক দশক আগে খোঁজ মিলেছিল গ্রহাণুটির। ২৪ জুন সকাল ৬.৪৪ মিনিটে পৃথিবীর গা ঘেঁষে ছুটে যায় গ্রহাণুটি। পৃথিবী থেকে মাত্র ৩.৭৬ মিলিয়ন দূর দিয়ে যায় সেটি। এর ব্যাসার্ধ ছিল ৩১০ মিটার। পৃথিবীর দিকে ঘণ্টায় ৪৬,৪০০ কিলোমিটার বেগে ছুটে আসছিল এই গ্রহাণুটি। এবার পালা (Asteroid 2020 ND)এর। প্রহর গোনা শুরু করেছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: