তামিমার ‘ভিডিও ক্লিপ’ দেখে চমকে ওঠেন রাকিব (ভিডিও)

নাসির হোসেনও বিয়েকে স্মরণীয় করতে ভালোবাসা দিবসটিকেই বেছে নেন। কিন্তু বিয়ের সপ্তাহ পার না হতেই চরম বিতর্ক শুরু হয়েছে। তামিমার আগের স্বামী রাকিবের দাবি, তার সঙ্গে ডিভোর্স না করেই নাসিরকে বিয়ে করেছেন। কিন্তু সপ্তাহ যেতে না যেতে আসে নানা গুঞ্জন। প্রথমে প্রেম, তারপর বিয়ে।

এভাবে সংসার শুরু হয় তামিমা তাম্মি ও রাকিবের। তবে সেই বিয়েও ছিল তামিমার চাপে। ১১ বছরের সংসার রয়েছে ৯ বছরের কন্যা সন্তান। কিন্তু গত ১৪ ফেব্রুয়ারি তামিমা বিয়ে করেছেন ক্রিকেটার নাসির হোসেনকে।

এমন দাবি করে থানায় জিডিও করেছেন রাকিব। বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে উত্তরা পশ্চিম থানায় এ জিডিটি করেন। উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ মো. আক্তারুজ্জামান ইলিয়াসও সংবাদমাধ্যমটি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তবে জিডিতে রাকিব যেসব তথ্য উল্লেখ করেছেন তাতে নতুন বিতর্ক শুরু হয়েছে। রাকিবের দাবি, তামিমা তার সঙ্গে সংসার করা অবস্থা অলোক নামে আরেক ছেলেকে বেছে নেন। সেখানে ছয় মাস সংসারও করেন। পরে আবার রাকিবের সংসারে ফিরে যান।

জিডিতে রাকিব উল্লেখ করেন, তামিমার সঙ্গে এখনও তার ডিভোর্স হয়নি। ডিভোর্স ছাড়া স্ত্রী কিভাবে অন্যের সঙ্গে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন সেই প্রশ্ন তার। এজন্য স্ত্রীর বিরুদ্ধে জিডি করেছেন তিনি।

পরে জিডির কপি ও তাদের বিয়ের কাবিন নামাও সামাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। জিডিতে রাকিব অভিযোগ করেছেন, তার সঙ্গে সংসার করা অবস্থায় তামিমা গোপনে আরেকজনকে। সেখানে ছয়মাস সংসারও করেন।

জিডি সূত্রে আরও জানা যায়, তামিমা ছয় মাস যে ছেলের সঙ্গে সংসার করেছেন ওই ছেলের নাম অলক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি অডিও ক্লিপে এই ছেলের বিষয়েই নাসির ও রাকিবের মধ্যে কথোপকথন হয়।

শনিবার রাকিব তামিমা ও তার সম্পর্কের নানা বিষয়ে কথা বলেছেন গণমাধ্যমের সঙ্গে। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, তামিমাকে তিনি দুইবার বিয়ে করেছেন। অর্থাৎ তামিমার জীবনে তিন স্বামী (নাসির হোসেন, অলোক ও রাকিব) এলেও বিয়ে করেছেন চারবার।

রাকিব বলেন, ‘প্রেম করে বিয়ে করেছিলাম। সে আসলে আমাকে চাপ দিয়েই বিয়ে করেছিল। প্রথমে আমরা টাঙ্গাইলে কোর্ট ম্যারেজ করেছিলাম। পরে আমরা বিয়ে করি বরিশালে। আমার বউকেই দুইবার বিয়ে করেছি। এরপর সংসার শুরু করি।’

রাকিব বলেন, এক পর্যায়ে ১৪ তারিখ দেখি তার একটা বিয়ের ভিডিও ক্লিপ। সে কবে দেশে আসছে তাও জানি না। আমি তো ভিডিও দেখে অবাক! এটা নিয়ে আমি ১৬ তারিখে একটা জিডি করলাম। জিডি করার পরে এইটা সবাই জানতে পারল। তখন আমার ভাইকে নিয়ে একজন সাংবাদিক আমার শাশুড়ির বাসায় গিয়েছিল। তখন তিনি বলেন, ‘রাকিব কে? আমি কোনো রাকিবকে চিনি না।’ সাংবাদিক ছবি দেখানোর পর তিনি নাসিরকে কল করেন। এরপর নাসির আমাকে ফোন করে। সেই অডিও ক্লিপ আমি মিডিয়ায় দিয়েছি।’

রাকিব ও নাসিরের ফোন রেকর্ডে রাকিবের প্রশ্ন ছিল, আপনি কি তামিমা সম্পর্ক সব কিছু জানেন? উত্তরে নাসির হোসেন বলেন, তার সব কিছু জেনেশুনেই আমি তাকে বিয়ে করেছি। তার বাচ্চা আছে, তার আগেও বয়ফ্রেন্ড ছিল সবকিছুই আমি জানি। আপনার বৌ আপনার সাথে ভালো থাকলে নিশ্চয়ই আপনার ১১ বছরের সংসার ভেঙে আমার কাছে চলে আসতো না।

শেয়ার করুন

Check Also

রা’কিবকে শা’স্তি দেওয়া উচিতঃ নাসিরের মডেল বান্ধবী

ব্যাড বয় খ্যাত নাসির। বরাবরই তিনি আলোচনার শীর্ষে থাকেন। ১৪ ফেব্রুয়ারি বিয়ে করে ফের আলোচনায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *