জিজ্ঞাসাবাদের সময় পুলিশকে ‘ইমোশনাল ব্ল্যাকমেইলের’ চেষ্টা পরীমনির!

জিজ্ঞাসাবাদের সময় পুলিশকে ‘ইমোশনাল ব্ল্যাকমেইলের’ চেষ্টা পরীমনির!

অবৈধ মাদকদ্রব্য রাখা, পর্নোগ্রাফি ও ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগে গ্রেফতার ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনিকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় পুলিশ কর্মকর্তাদের ‘ইমোশনাল ব্ল্যাকমেইলের’ চেষ্টা করেন বলে জানা গেছে। জিজ্ঞাসাবাদে তার বর্তমান পরিস্থিতির জন্য নিজের ‘অপরিপক্বতাকে’ দায়ী করেন।

সেই সঙ্গে শৈশবে মা-বাবাকে হারানোর কথা উল্লেখ করে আবেগি বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করেন নায়িকা। বৃহস্পতিবার বিকালে পরীমনিকে বনানী থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব। এরপর মাদক মামলায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। সূত্রে জানা গেছে, জিজ্ঞাসাবাদের সময় পরীমনি স্বাভাবিকই ছিলেন। তিনি অকপটে স্বীকার করেন, বর্তমান পরিণতির জন্য তার অপরিক্বতা দায়ী। তাকে যারা পরিচালনা করতেন, তারা কোনো বিষয়ে সতর্ক করেননি।

নিজের সীমানাও অনেক সময় ভুলে গেছেন তিনি। যাচাই-বাছাই ছাড়া যার তার সঙ্গে সম্পর্ক রাখাও বুদ্ধিদীপ্ত সিদ্ধান্ত ছিল না বলে মনে করছেন তিনি। তাই চিত্রনায়িকা পদস্খলনের জন্য দায়ী করেছেন তার পারিপার্শ্বিকতাকে।

জিজ্ঞাসাবাদে পরীমনি অভিভাবক শূন্যতার কথা উল্লেখ করে আবেগি হয়ে পড়েন। উল্লেখ্য, বুধবার রাতে বনানীর বাসায় পৃথক অভিযান চালিয়ে পরীমনি ও রাজকে আটক করে র‍্যাব। অভিযানকালে তাদের বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়।

শেয়ার করুন