চুল-ভ্রু কে’টে গলায় জুতার মালা পরিয়ে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হলো তাদের!

অ’নৈ’তিক কাজে’র অ’ভিযোগে এক নারী ও পুরুষকে গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে মাথার চুল, ভ্রু ও গলায় জুতার মালা পরিয়ে রাতের আধারে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ঘ’টনাটি ঘ’টেছে বুধবার রাতে ঝিনাইদহের শৈলকুপার আবাইপুর গ্রামে। তবে এ ঘ’টনাটি ঐ রাতে স্থা’নীয় পু’লিশ ক্যাম্পে জা’নালে পু’লিশ তাদেরকে ক্যাম্পে সোপর্দ ক’রতে বলে।

তবে পরে তারা স্ব-ইচ্ছায় গ্রাম ত্যা’গ করেছে।নাসিমের প্রতিবেশী বিশারত বিশ্বা’সের স্ত্রী কোহিনুর বেগম জা’নান, প্রায়ই সাগর নাসিমের বাড়িতে অব’স্থান করে। গত বুধবার রাতেও একই ঘ’টনা ঘটলে রাত ১০টার দিকে তিনি সাগর ও নাসিমের স্ত্রীকে ঘরে আ’টকিয়ে গ্রামবাসীদের খবর দেন।

পরে গ্রামের গণ্যমান্য ব্য’ক্তিবর্গ বিশারত বিশ্বা’সের বাড়িতে সালিশ বৈঠক বসায়। সেখানে সিদ্ধা’ন্ত হয় সাগর ও নাসিমের স্ত্রীর অনৈতিক কাজে’র অ’ভিযোগে তাদের মাথার চুল ও ভ্রু কাটবে নাসিম নিজেই। এ সিদ্ধা’ন্ত নাসিমকে জা’নানো হলে পরে সে এসে তার স্ত্রী ও পরকীয়ার অ’ভিযোগে আ’টক সাগরের মাথার চুল ও ভ্রু কে’টে দেয়। এরপর তাদের গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেওয়া হয়।

পু’লিশকে জা’নানোর পর পু’লিশ তাদের সোপর্দ ক’রতে বললে পরে সিদ্ধা’ন্ত হয় পু’লিশে না দিয়ে তাদের অভিভাবকদের কাছে দেওয়া হবে। কিন্তু রাত ২টা পর্যন্ত কোন অভিভাবক না আ’সলে পরে দুজনে রাতেই এলাকা ত্যা’গ করে বলে তিনি জা’নান। তবে তারা এখন কোথায় আছে কোন পরিবারই তা জা’নেন না।

হাটফাজিলপুর পু’লিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই ফারুক হোসেন জা’নান, বুধবার রাতে আবাইপুর গ্রাম থেকে তাকে জা’নানো হয়েছিল অনৈতিক কাজে’র অ’ভিযোগে দুইজনকে একই ঘরে আ’টকিয়ে রাখা হয়েছে। তিনি তাদের ক্যাম্পে সোপর্দ ক’রতে বললে তারা তাকে জা’নান উভ’য়ের অভিভাবকদের কাছে দেওয়া হবে। তবে এখন পর্যন্ত কোন অ’ভিযোগ তাদের কাছে আসেনি। আ’সলে ব্যব’স্থা নেবেন।

শেয়ার করুন