চীনের চারটি ভ্যাকসিনই মানবদেহে নিরাপদ’

করোভাইরাসের ভ্যাকসিনের অগ্রগতি জানাতে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে চীনের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। এ সময় জানানো হয়, চীন এ পর্যন্ত মানবদেহে যে চারটি করোনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষা চালিয়েছে, তার সবগুলোই নিরাপদ। ট্রায়ালের পর কোনো স্বেচ্ছাসেবীর দেহেই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি বলেও সংবাদ সম্মেলন থেকে দাবি করা হয়।

চীনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্ত উন্নয়ন বিভাগের সহকারী পরিচালক তিয়ান বাওগু বলেন, আমরা আমাদের উদ্ভাবিত ভ্যাকসিনের উন্নয়নে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। পাঁচটি প্রযুক্তির মাধ্যমে কাজ করা হচ্ছে। আর এরইমধ্যে তৃতীয় ধাপে যে ভ্যাকসিনগুলোর পরীক্ষা চলছে তা নিরাপদ প্রমাণ হয়েছে। আশা করি খুব শিগগিরই এগুলোর চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়া যাবে।

আশার কথা শুনিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক কোম্পানি ইমিউনিবায়োও। তাদের উদ্ভাবিত করোনা ভ্যাকসিনের মানবদেহে পরীক্ষার প্রথম ধাপ শুরু হয়েছে। এটি করোনাভাইরাস শক্তভাবে প্রতিরোধ করতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

করোনা ভ্যাকসিন উদ্ভাবনের কথা জানিয়েছে কানাডীয় প্রতিষ্ঠান ইনটস ফার্মাসিউটিক্যালস। এরইমধ্যে মানবদেহে এর প্রথম ধাপে পরীক্ষা শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে ওষুধ প্রস্তুতকারী এই কোম্পানিটি।

করোনা ভ্যাকসিন হাত পাওয়া গেলে প্রত্যেক নাগরিকের জন্য তা নিশ্চিত করা হবে বলে জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভ্যাকসিনের জন্য সরকার সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলেও জানান তিনি। বর্তমান পরিস্থিতিতে সবাইকে স্বাস্থ্য নিরাপত্তা মেনে চলারও আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে ভেনেজুয়েলায় গিয়ে রাশিয়ার উদ্ভাবিত টিকা স্পুটনিক ফাইভ গ্রহণ করেছেন হন্ডুরাসের সাবেক প্রেসিডেন্ট মেনুয়েল জেলাইয়া। মঙ্গলবার এ তথ্য জানান ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো।

শেয়ার করুন