চিপস দিয়ে দোকানে গেলেন বাবা, গোঙানির শব্দে ছেলের লাশ পেলেন মা

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে বাবার সঙ্গে অভিমান করে নূরুল হত নিশাত নামে ৯ বছর বয়সী এক শিশু আত্মহত্যা করেছে।
শনিবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বাগধারা বাজার সংলগ্ন আশ্রয়ণ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। নিশাত উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের নূর আলমের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, স্ত্রী ও তিন ছেলে নিয়ে আশ্রয়ণ কেন্দ্রে থাকেন নূর আলম। তার বাড়ি উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নে। শনিবার সকালে ঘরের পাশে মাটি ভরাটের কাজ করেন তিনি। কাজ শেষে দুপুরের দিকে পার্শ্ববর্তী একটি দোকানে নাস্তা করতে যান। এ সময় বাবার সঙ্গে দোকানে যাওয়ার বায়না ধরে ছোট ছেলে নিশাত। কিন্তু দোকানে না নিয়ে চিপস কিনে দিয়ে তাকে ঘরে রেখে যান নূর আলম।

দোকানে না নেয়ায় বাবার সঙ্গে অভিমান করে ছেলেটি। পরে ঘরের দরজা বন্ধ করে জানালার সঙ্গে গামছা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে নিশাত। কিছুক্ষণ পর তার গোঙানির শব্দ শুনে জানালা ভেঙে ঘরে ঢোকেন মা। পরে নিশাতকে ঝুলতে দেখেন তিনি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ রোমন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তদন্ত করে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.