চাচার ঘরে তরকারি কাটতে গিয়ে রক্তাক্ত পায়জামা নিয়ে ফিরল ভাতিজি

চাচার ঘরে তরকারি কাটতে গিয়ে রক্তাক্ত পায়জামা নিয়ে ফিরল ভাতিজি

চাচার বিরুদ্ধে এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী ওই শিশুকে বাঁচাতে তিন ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন। এজন্য পরিচিতদের মাধ্যমে চেষ্টা চালাচ্ছেন শিশুর বাবা। বর্তমানে শিশুটি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

এ ঘটনা ঘটেছে বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার চরামদ্দি ইউনিয়নের কাটাদিয়া গ্রামে। শিশুটির বাবা বলেন, রোববার দুপুরে প্রতিবেশী শাহ আলম আমার মেয়েকে তরকারি কাটানোর কথা বলে ঘরে ডেকে নেন। শাহ আলম তিন সন্তানের জনক।

তাকে আমার মেয়ে চাচা বলে ডাকে। আমার মেয়ে যখন ঘরে ফিরে আসে তখন দেখি তার পায়জামা রক্তাক্ত। তার মাকে বিষয়টি বললে সে দেখে- আমার মেয়ের প্রস্রাবের রাস্তা থেকে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। বিকেলে মেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করাই।

তিনি আরো বলেন, ডাক্তার বলেছে আমার মেয়ের শরীর থেকে অনেক রক্ত নেমে গেছে। তার জন্য তিন ব্যাগ বি-পজিটিভ রক্ত দরকার। আমার মেয়ে সুস্থ হয়ে উঠলে শাহ আলমের মামলা করব।

শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক ডা. এইচ.এম সাইফুল ইসলাম বলেন, অসুস্থ অবস্থায় রোববার শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই শিশুর চিকিৎসা চলছে। তবে পরীক্ষা করার পর বলতে পারব, শিশুটির সঙ্গে কী হয়েছিল।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *