‘গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে রাজপথে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে ছাত্রদল’

ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন। দীর্ঘ ২৮ বছর পর কাউন্সিল করে ভোটের মাধ্যমে ছাত্রদলের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, বিএনপির রাজনীতিতে ছাত্রদলের ভূমিকা, ছাত্রদলের কমিটি গঠনে টাকা লেনদেনসহ নানা বিষয় নিয়ে সাক্ষাৎকারে যুক্ত হন দেশের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজপোর্টাল বিডি২৪লাইভের সঙ্গে। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন স্টাফ করেসপন্ডেন্ট মো. ইলিয়াস।

বিডি২৪লাইভ: ছাত্র দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে কী ভাবছেন?

খোকন: এক থেকে দেড় মাসের মধ্যেই হয়ে যাবে। ঢাকার বিভিন্ন ইউনিটের কমিটি প্রস্তুত, এই কমিটিগুলো দেওয়া হলেই আমরা পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে দেব।

বিডি২৪লাইভ: পূর্ণাঙ্গ কমিটি দিতে দেরি হওয়ার কারণ কি?

খোকন: হ্যাঁ দেরি কিছুটা হয়েছে। করোনা মহামারির জন্য আমাদের কার্যক্রম বন্ধ থাকার কারনেই বেশি দেরি হয়েছে।

বিডি২৪লাইভ: দেশের চলমান রাজনৈতিক সম্পর্কে কিছু বলেন..

খোকন: বাংলাদেশ তো বর্তমানে রাজনৈতিক সংকটে রয়েছে। স্বাধীনভাবে রাজনীতি করা যাচ্ছে না। দেশের রাজনীতি বর্তমান এই অবৈধ সরকারের কাছে জিম্মি। তারা যেভাবে চাচ্ছে সেভাবে হচ্ছে। দেশের জনগণের রাজনীতি করার যে অধিকার সে অধিকার হরণ করা হয়েছে। দেশের জনগণ, রাজনীতিবিদরা সরকারের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে। প্রশাসন তাদের ইচ্ছা অনুযায়ী তাদের জন্য কাজ করছে, জনগণের জন্য নয়।

বিডি২৪লাইভ: এ পরিস্থিতিতে রাজনীতিতে ছাত্রদল ছাত্রদের জন্য কতটুকু ভূমিকা রাখতে পারছে?

খোকন: ছাত্রদল সব সময় ছাত্রদের জন্যই কাজ করে যাচ্ছে। কোটা আন্দোলন থেকে শুরু করে যতগুলো আন্দোলন ছাত্রদের অধিকারের জন্য হয়েছে সবগুলো আন্দোলনেই জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল রাজপথে থেকে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছে। বুয়েটের আবরার হত্যাসহ প্রতিটি অধিকার নিয়ে ছাত্রদল মাঠে আছে এবং কাজ করে যাচ্ছে। দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ছাত্রলীগ তাদের একক আধিপত্য যেভাবে কায়েম করেছে। আমরা সবসময় এর প্রতিবাদ করেছি। দেশের অন্যান্য ছাত্র সংগঠনের সাথে এবং ছাত্রদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

বিডি২৪লাইভ: ছাত্রদলের গুণগত মান উন্নয়নের জন্য কি কি উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন?

খোকন: আমাদের সাংগঠনিক অভিভাবক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পরামর্শক্রমে ছাত্রদলের গুণগত মানোন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমরা উদ্যোগ নিয়েছি বিভিন্ন কর্মশালা পরিচালনা করার। কর্মশালায় জাতীয়তাবাদী, বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিভিন্ন বিষয় এবং পাশাপাশি সমসাময়ীক রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে কর্মশালায় আলোচনা করা হবে।

বিডি২৪লাইভ: বিএনপির বর্তমান রাজনীতিতে ছাত্রদল কি ভূমিকা রাখছে?

খোকন: ছাত্রদলকে বিএনপির ভ্যানগার্ড বলা হয় এবং জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির অন্যতম একটি শক্তিশালী সংগঠন হচ্ছে ছাত্রদল। বাংলাদেশের জনগণের অধিকার আদায়ের জন্য যতগুলো আন্দোলন-সংগ্রাম হয়েছে সবগুলোতেই ছাত্রদল সক্রিয়ভাবে ভূমিকা পালন করে আসছে। সামনের দিনগুলোতেও দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল রাজপথে থেকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।

বিডি২৪লাইভ: কাউন্সিলের পরে ক্যাম্পাস কমিটি দেওয়ার কথা থাকলেও কতটা সফল হয়েছে?

খোকন: সত্যিকার অর্থে কোন ক্যাম্পাসে কমিটি দিতে পারিনি। করোনা ভাইরাসের কারনে ক্যাম্পাসগুলো এখনো খোলেনি, ক্যাম্পাস খোলার পরপরই কমিটি ঘোষণা করা হবে।

বিডি২৪লাইভ: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে অস্থিরতা বিরাজ করার পেছনে মূল কারণ কি?

খোকন: পক্ষ বিপক্ষ রেশারেশি এগুলো রাজনীতির একটা অংশ। এগুলো সব রাজনৈতিক দলের মধ্যেই থাকে। আবেগের কারনে আমরা হয়তো অনেক সময় অনেক কিছু বলে থাকি, অনেক সময় রাগ করি, কিন্তু সবসময় দেখা যায় দলের স্বার্থে আমরা এক সাথেই কাজ করে থাকি।

বিডি২৪লাইভ: ছাত্রদলের কমিটি গঠন নিয়ে টাকা লেনদেনের অভিযোগ রয়েছে এ বিষয়ে আপনি কি বলবেন…

খোকন: টাকা লেনদেনের বিষয় নিয়ে এমন কোন তথ্য এখনো আমরা পায়নি। যদি কারো বিরুদ্ধে এমন তথ্য প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

বিডি২৪লাইভ: সময় দেয়ার জন্য ধন্যবাদ।

খোকন: আপনাকে এবং বিডি২৪লাইভ পরিবারকেও ধন্যবাদ।

শেয়ার করুন