কোভিডে আক্রান্ত হয়ে কুমিল্লায় প্রথম চিকিৎসকের মৃত্যু

কুমিল্লার সেন্ট্রাল মেডিকেল কলেজের শিশুরোগ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. মুজিবুর রহমান রিপন (৫০) আর নেই। কোভিড–১৯–এ আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় আজ শনিবার দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে তাঁর মৃত্যু হয়। কুমিল্লায় করোনায় কোনো চিকিত্সকের মৃত্যুর ঘটনা এটিই প্রথম।

মুজিবুর রহমানের গ্রামের বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলায়। তিনি ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের পঞ্চম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। সেন্ট্রাল মেডিকেল কলেজের অত্যন্ত জনপ্রিয় শিক্ষক ও চিকিত্সক ছিলেন তিনি। মৃত্যুকালে তিনি চিকিত্সক স্ত্রী এবং ১৪ ও ৭ বছরের দুই ছেলে রেখে গেছেন।

সেন্ট্রাল মেডিকেল কলেজের সচিব মিয়া মোহাম্মদ তৌফিক বলেন, গত মাসের শেষের দিকে মুজিবুর রহমানের শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। এরপর তিনি নমুনা পরীক্ষা করান। এতে তাঁর করোনা পজিটিভ আসে। পরে তাঁর শ্বাসকষ্টসহ অন্যান্য উপসর্গ বেড়ে গেলে ২ জুন রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

এরপর তাঁর দুই দফা নমুনা পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ আসে। কিন্তু হঠাৎ করে তৃতীয় নমুনা পজিটিভ আসার পর তাঁর অবস্থার অবনতি ঘটে। এরপর তাঁকে ইউনাইটেড হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়। সেখানে চিকিত্সাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তাঁর মরদেহ গ্রামের বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

সেন্ট্রাল হাসপাতালের শিশু বিভাগের প্রধান জহিরুল আলম বলেন, মুজিবুর রহমান ছয় বছর আগে সেন্ট্রাল মেডিকেল কলেজে যোগ দিয়েছিলেন। করোনাকালেও তিনি নিয়মিত রোগী দেখতেন। তাঁর স্ত্রী টমছমব্রিজ এলাকার একটি হাসপাতালের চিকিত্সক। নগরের টমছমব্রিজ এলাকায় স্ত্রী, দুই ছেলেসহ থাকতেন তিনি।

চিকিৎসক মুজিবুর রহমানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন চিকিত্সকদের সংগঠন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) কুমিল্লা জেলা শাখার সভাপতি আবদুল বাকী আনিছ ও সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান জসীম।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: