কবরী চাচীকে কথা দিয়েও রাখতে পারিনি: শামীম ওসমান

কবরী চাচীকে কথা দিয়েও রাখতে পারিনি: শামীম ওসমান

অভিনেত্রী থেকে নেত্রী হয়েছিলেন সারাহ বেগম কবরী। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের হয়ে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসন থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। তার মৃ’ত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের বর্তমান সাংসদ শামীম ওসমান।

মরহুমার আত্মার মাগফিরাত এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে শামীম ওসমান বলেন, সারাহ বেগম কবরী সম্পর্কে আমার চাচী। গত ২-৩ মাস আগে উনার সঙ্গে আমার কথা হয়েছিল। তিনি বলেছিলেন, ‘শামীম বাসায় আসো।

তোমার সঙ্গে আমার কথা আছে।’ আমি বলেছি, ‘চাচী আসবো।’ কষ্টের বিষয়, আমি কথা দিয়েও কথা রাখতে পারিনি। কোভিডের কারণে আমার আর যাওয়া হয়নি চাচীর বাসায়। তাই শেষবারের মতো দেখাটাও হলো না চাচীর সঙ্গে।

করোনায় আ’ক্রান্ত হয়ে শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১২টা ২০মিনিটে রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন কিংবদন্তি অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী। মৃ’ত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।

কবরীর মৃ’ত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

এর আগে শারীরিক জটিলতা এবং করোনা পজিটিভ হওয়ায় ৫ এপ্রিল রাতে দ্রুত কুর্মিটোলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় কবরীকে। সেখানেই তার চিকিৎসা চলছিল।

কিন্তু কুর্মিটোলা হাসপাতালে আইসিইউ না থাকায় শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে পাঠানো হয় এ অভিনেত্রীকে। গত বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) দুপুর ২টার দিকে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। সেখানই চিকিৎসাধীন অবস্থায় চিরবিদায় নিলেন বাংলা সিনেমার মিষ্টি মেয়েখ্যাত এ অভিনেত্রী।

শেয়ার করুন