কবরস্থান থেকে এক রাতে ৭টি কঙ্কাল চু’রি

নরসিংদীর পলা’শে পৃথক দুটি সামাজিক কবরস্থান থেকে ৭টি কঙ্কাল চু’রি করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার গভীর রাতে উপজে’লার ডাঙ্গা ইউনিয়নের কাজিরচর গ্রামের সামাজিক কবরস্থান থেকে ৬টি ও একই ইউনিয়নের ইস’লামপাড়া গ্রামের সামাজিক কবরস্থান থেকে একটি কঙ্কাল চু’রি হয়।

এ খবর গ্রামবাসীর মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে আতঙ্ক ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। ঘটনার খবর পেয়ে বুধবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পলা’শ উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা রুমানা ইয়াসমিন ও পলা’শ থা’নার ওসি শেখ মো. নাসির উদ্দীন।

পু’লিশ ও স্থানীয়রা জানান, দুর্বৃত্তরা গভীর রাতে কাজিরচর কবরস্থানে ৭ থেকে ৮টি কবর খনন করে। এর মধ্যে ৬টি কবর থেকে কঙ্কাল চু’রি করে নিয়ে যায়। একই সময় পার্শ্ববর্তী ইস’লামপাড়া গ্রামের সামাজিক কবরস্থান থেকেও একটি কঙ্কাল চু’রি করে নিয়ে যায়।

কাজিরচর গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা আমিনুল ইস’লাম বলেন, সকালে ফজরের নামাজ পড়ার পর কয়েকজন মু’সল্লি কবরস্থান জিয়ারত করতে গেলে কয়েকটি কবর খনন করা অবস্থায় দেখতে পান।

পরে তারা স্থানীয়দের বিষয়টি জানালে লোকজন সেখানে গিয়ে কঙ্কাল চু’রির ঘটনা দেখতে পান। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সাবের উল হাইকে বিষয়টি জানানো হয়।

এলাকার ইউপি সদস্য মো. সালাউদ্দিন ও কৌশিক আহমেদ নয়ন জানান, চু’রি যাওয়া ৭টি কংকালের মধ্যে ৫টির পরিচয় পাওয়া গেছে।

তারা হলেন- কাজিরচরের জিন্নত আলী, আ. আজিজ, মিলন মিয়া, মোরশেদা ও ইস’লামপাড়ার নূর আক্তার নুরী। তারা সবাই ৭-৮ মাস আগে মা’রা গেছেন। অ’পর ২টির পরিচয় জানা যায়নি।

পলা’শের ডাংগা ইউপি চেয়ারম্যান সাবের উল হাই বলেন, কংকাল চু’রি হওয়ার ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। কঙ্কাল চো’রদের আইনের আওতায় এনে শা’স্তির দাবি জানান তিনি।

পলা’শ থা’নার ওসি শেখ মো. নাসির উদ্দীন জানান, কবর থেকে কঙ্কাল চু’রির খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। বিষয়টি ত’দন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন