এবার সালমান শাহ’র ভাস্কর্য ভাঙার হুমকি

কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার পর থেকে এখন সারাদেশে ভাস্কর্য ভাঙার সাহস বেড়েছে এক শ্রেণির মানুষদের, আবার এদের আক্রমণের শিকার হওয়ার ভয়ে এই অপশক্তির বিরুদ্ধে কেউ মুখও খুলছে না। ফলে এসব খবর রয়ে যাচ্ছে মিডিয়ার আলোচনার বাইরে। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার পর সম্প্রতি কুষ্টিয়াতে বিপ্লবী বাঘা যতিনের ভাস্কর্যও ভাঙা হয়েছে।

এদিকে সালমান শাহ’র ভাস্কর্য ভাঙার জন্য নানাভাবে হুমকি প্রদান করা হচ্ছে ‘স্বপ্নের ঠিকানা’ রিসোর্টের মালিক রাশেদ খানকে। সম্প্রতি রাশেদ খান তার দুটি ইউটিউব চেনেলের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বিষয়টি সবাইকে জানান।

রাশেদ খান বলেন, ‘স্থানীয় বাসিন্দা থেকে শুরু করে দেশের ও বিদেশের নানা জায়গা থেকে নানাভাবে আমাকে হুমকি দেয়া হচ্ছে। আমাকে বারবার বলা হচ্ছে সালমান শাহ’র ভাস্কর্য ভেঙে ফেলতে। আমি আমার ভালোবাসার জায়গা থেকে অনেক টাকা খরচ করে নিখুঁতভাবে এই ভাস্কর্যটি তৈরি করেছি। এর সঙ্গে জড়িত আমার অনেক আবেগ অনুভূতি। এটা আমি ভাঙতে চাই না। তার পরেও আমি সাধারণ মানুষের রায় চাই। যদি দেশের মানুষ সালমান শাহ’র ভাস্কর্য ভাঙার পক্ষে থাকে তাহলে আমি এই ভাস্কর্য ভেঙে ফেলব। আর যদি ভাঙার পক্ষে মানুষের সংখ্য খুবই কম হয়। তাহলে সরকারের উচিত এই অপশক্তির বিরুদ্ধে কঠোর হওয়া। তা না হলে এ অপশক্তি আমাদের দেশের ইতিহাস ঐতিহ্যের ওপর আঘাৎ হানবে। যারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙতে পারে তারা সুস্থ মানুষ হতে পারে না। আমি সালমান শাহ’র ভাস্কর্যটি নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। যে কোন সময় প্রকাশ্যে বা গোপনে এই অপশক্তি সালমান শাহের ভাস্কর্য ভেঙে দিতে পারে। সরকার কঠোর না হলে সারাদেশে ভাস্কর্য ভাঙার এই উৎসব ঠেকানো যাবে না।’

উল্লেখ্য, আজ থেকে ২৫ বছর আগের কথা। হঠাৎ করে একটি খবর রেডিও টিভির কল্যাণে ছড়িয়ে পড়ে- ঢালিউড সুপারস্টার সালমান শাহ আর নেই। সেই খবর শোকের সাগরে ভাসিয়ে দেয় সালমান ভক্তদের। তেমনি এক ভক্তের নাম রাশেদুল ইসলাম (রাশেদ খান)। যুবক রাশেদ প্রিয় নায়ককে আজও আইডল মানেন। তাকে ভালোবাসেন সেরা নায়ক হিসেবে। অনেকদিন ধরেই ইচ্ছে ছিল প্রিয় নায়কের জন্য কিছু করবেন।

অবশেষে গাজীপুরের কালীগঞ্জ থানা, উলুখোলা, বীরতুল, উত্তরপাড়া তার বাড়ির পাশে গড়ে তুলেছেন তিনি সালমান শাহের সবচেয়ে সুপারহিট সিনেমা ‘স্বপ্নের ঠিকানা’র নামে একটি রিসোর্ট। সেখানে গড়েছেন অমর নায়ক সালমানের একটি নান্দনিক ভাস্কর্য। এই ভাস্কর্যের জন্য রাশেদ খান অনেক প্রশংসা অর্জন করেছেন। সারা দেশ থেকে সালমান ভক্তরা এখানে আসেন সালমানের এই ভাস্কর্য দেখতে এবং ভাস্কর্যের সঙ্গে ছবি তুলতে। আর এই ভাস্কর্য দেখতে কোন টিকেট বা কোন টাকা নেওয়া হয়না।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: