এবার গ্রে’ফতার হতে পারেন হেফাজতে ইসলামের নেতা মামুনুল হক

সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামে হি’ন্দুদের বা’ড়িঘ’রে হা’’ম’লা, ভাং’’চু’র ও লু’ট’পা’টের ঘ’ট’নায় হেফাজতে ইসলামের নেতা মামুনুল হককে গ্রে’ফ’তারের দা’বি জানানো হয়েছে। শাল্লার ঘ’ট’নার প্র’তি’বা’দে বৃহস্পতিবার সিলেটে বি’’ক্ষো’ভ কর্মসূচি থেকে এমন দা’বি জানানো হয়।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন
এছাড়া এ ঘ’ট’নায় দুটি মা’ম’লা হয়েছে। এর মধ্যে একটি আ’ক্রা’ন্ত এক সংখ্যা’ল’ঘু বা’দী হয়ে এবং অপরটি পুলিশ বা’দী হয়ে দা’য়ের করেছে। পুলিশের মা’ম’লার বা’দী এসআই আব্দুল করিম। তবে অপর মাম’লার বা’দীর নাম নি’রা’প’ত্তার কথা বলে জানতে দেয়নি পুলিশ।

এই দুই মা’ম’লায় আ’সা’মি করা হয়েছে প্রায় ১ হাজার ৬০০ জনকে। এর মধ্যে আ’ক্রা’ন্ত সং’খ্যাল’ঘুর মা’ম’লায় ৭০ জনের নামোল্লেখ ছাড়াও অ’জ্ঞা’ত ১৫০০ জনকে অ’ভিযু’ক্ত করা হয়েছে। পুলিশ বা’দী হয়ে দা’য়ের করা মাম’লায় অ’ভি’যু’ক্ত’ করা হয়েছে ১৫০ জনকে। শাল্লা থা’নার ওসি মো. নাজমুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মাম’লা দুটি দা’য়ের হয়। তবে মাম’লায় অ’ভি’যু’ক্ত কেউই আ’টক বা গ্রে’ফ’তার নেই বলে জানান তিনি।

তিনি আরও জানান, পরিস্থিতি বিবেচ’নায় আ’ক্রা’ন্ত নোয়াগ্রামের নি’রা’প’ত্তা নিশ্চিত করতে অ’স্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। অব্যাহত রয়েছে পুলিশি টহল। সিলেট কেন্দ্রীয় শ’হিদ মিনার প্রাঙ্গণে এ বি’ক্ষো’ভ কর্মসূচির আয়োজন করে নাগরিক মো’র্চা দু’’ষ্কা’ল প্র’তি’রো’ধে আমরা। বিকালে শ’হী’দ মিনার প্রা’ঙ্গণ থেকে ‘বি’ক্ষো’ভ মি’ছি’ল শুরু হয়ে নগরীর জি’ন্দাবা’জার পয়েন্ট ঘুরে আবার শ’হিদ মি’নার চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এরপর সেখানে বি’’ক্ষো’ভ স’মা’বেশ করা হয়।

শেয়ার করুন