Breaking News

এনা’ল ফি’শার কি? কেন হয় এবং জে’নে নিন প্র’তিকার

ম’লদ্বারের ব্য’থায় অনেকে ভু’গে থা’কেন। ফি’শার মানে ম’লদ্বারে ঘা বা ফে’টে যাওয়া। তী’ব্র (একিউ’ট) ফি’শার হলে রো’গীর ম’লদ্বারে ব্য’থা হয়। দী’র্ঘস্থা’য়ী (ক্র’নিক) ফি’শারে ব্য’থার তা’রতম্য হয়। এটি যে কোনো বয়’সে হতে পারে।

কারণ এবং কীভাবে ঘ’টে: কো’ষ্ঠকা’ঠিন্য অথবা ম’লত্যা’গে র সময় চা’প দেয়ার কারণে এনাল ফি’শার হয়। শ’ক্ত ম’ল বের হওয়ার সময় ম’লদ্বার ফে’টে যায় বলে মনে করা হয়। যারা আঁ’শযু’ক্ত খাবার খান তাদের এ স’মস্যা’টি কম হয় বলে মনে করা হয়। আঁ’শযু’ক্ত খাবারের মধ্যে র’য়েছে শাকসবজি, কাঁ’চা ফলমূল, আলুর ছোলা, ই’সবগুলের ভু’সি ইত্যাদি। ঘ’নঘন ম’লত্যা’গ বা ডা’য়রিয়া হলে ফিশার হওয়ার আ’শং’কা বেড়ে যায়।

উ’পসর্গ: ম’লদ্বারে ফি’শারের প্র’ধান ল’ক্ষণ হল- ব্য’থা ও র’ক্তক্ষ’রণ। এ ধ’রনের ব্য’থা সাধারণত ম’লত্যা’গে র অ’ব্যবহিত পরে হয় এবং কয়েক মিনিট থেকে কয়েক ঘণ্টা ধ’রে ব্য’থা চলতে পারে। ‘প্র’কটালজিয়া ফুগা’ক্স’ নামক এক ধ’রনের রো’গেও ম’লদ্বারে ব্য’থা হয়, কিন্তু সে ব্য’থা মল ত্যা’গে র স’ঙ্গে সংশ্লি’ষ্ট থাকে না। র’ক্ত জ’মাট বাঁ’ধা পা’ইলসেও ব্য’থা হয়, কিন্তু তখন রো’গী ম’লদ্বারে চাকা আছে বলে অ’ভিযো’গ করেন। ফিশারের রো’গীরা অনেক সময় প্র’স্রাবের স’মস্যায় ভো’গেন।

র’ক্ষণশী’ল চিকিৎ’সা: একিউট ফি’শার শু’রুর অ’ল্প দিনের ম’ধ্যেই চিকিৎ’সা শুরু হলে বি’না অ’পারেশনে ভালো হওয়ার স’ম্ভাবনা বেশি। ম’ল নরম করার, ম’লের পরিমাণ বৃ’দ্ধির জন্য আঁ’শযুক্ত খাবার বেশি খাওয়া উ’চিত এবং ব্য’থা’নাশক ওষুধ ব্যবহার করা যেতে পারে। সিজ বাথ নিলে উপকার হয়। এটির নিয়ম হ’চ্ছে আধ গা’মলা ল’বণ মি’শ্রিত হা’লকা গরম পানির মধ্যে নিত’ম্ব ১০ মিনিট ডু’বিয়ে রা’খতে হয়। স্থা’নিক অ’বশকারী ম’লম ব্যবহারে উ’পকার পাওয়া যায়। এতে যদি পু’রোপুরি না সারে এবং রো’গটি যদি বেশি দিন চলতে থাকে তাহলে অ’পারেশন ছা’ড়া ভালো হওয়ার স’ম্ভাবনা কমতে থাকে।

সা’র্জিক্যা’ল চিকিৎ’সা: ম’লদ্বারের মাং’সপেশির স’ম্প্রসারণ করা (এনাল ডা’ইলেটেশন)-এ প’দ্ধতিটির পা’র্শ্বপ্রতিক্রিয়ার জন্য বেশিরভাগ সা’র্জন এটির বিপ’ক্ষে। এ প’দ্ধতির জন্য কোনো কোনো রো’গীর ম’ল আ’টকে রাখার ক্ষ’মতা ব্য’হত হতে পারে।

ম’লদ্বা’রের স্ফিং’টারে অ’পারেশন: এ অ’পারেশনে ম’লদ্বারের অভ্য’ন্তরীণ স্ফিং’টার মাংশপে’শিতে একটি সূ’ক্ষ্ম অপা’রেশন ক’রতে হয়। অ’জ্ঞান করার প্রয়োজন নেই। দুই দিনের মধ্যেই রো’গী বাড়ি ফি’রে যেতে পারেন। অপা’রেশনের তিন দিন পর স্বা’ভাবিক কাজক’র্ম ক’রতে পারেন।

ডাঃ শরিফুল আলম খান
এমবিবিএস, এফসিপিএস (সার্জা’রি), এমএস (সার্জা’রি)
এফএমএএস, ডিএমএএস, এডভান্সড ল্যা’পারোস্কপিক, ক’লোরেক্টাল ও জেনারেল সার্জন।
(ওয়ার্ল্ড ল্যা’পারোস্কপিক হ’সপিটাল থেকে উচ্চতর প্র’শিক্ষণ প্রাপ্ত) যশোর মেডিকেল কলেজ ও হসপিটাল, যশোর।

শেয়ার করুন

Check Also

হঠাৎ করে হাত-পায়ে ঝি-ঝি লাগে বা অবশ হয়ে যায় ? মা’রা’ত্ম’ক রো’গে’র ইঙ্গিত !

আপনার কি হঠাৎ হঠাৎ হাত পায়ে ঝি-ঝি লেগে যায়? মানে ধরুন অনেক্ষণ কোথাও বসে আছেন, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *