‘এটা অনেক আগে থেকেই করতে চেয়েছি’

অভিনয় তার ধ্যান-জ্ঞান। যিনি মুহূর্তেই চরিত্রের মধ্যে ঢুকে যেতে পারেন। অভিনয় ছাড়া আর কিছু ভাবতে নারাজ। সব সময় মুখিয়ে থাকেন নতুন চরিত্র, নতুন চ্যালেঞ্জ নেওয়ার জন্য। তিনি হলেন মডেল-অভিনেত্রী-চিত্রনায়িকা মৌসুমী হামিদ। আরটিভি নিউজের সঙ্গে খোলামেলা আলাপচারিতায় যুক্ত হয়ে জানালেন বর্তমান ব্যস্ততা, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনাসহ অনেক কথা।

করোনাকালে শুটিং বন্ধ ছিল। কতদিন ঘরবন্দি ছিলেন?
আড়াই মাস হবে। তারপর তো শুটিং আরম্ভ হলে কাজে ফিরেছি। আসলে এভাবেই কাজ করে যেতে হবে।

ধারাবাহিক নাটক তোলপাড়-এ আপনাকে দেখা যাচ্ছে। সাড়া পাচ্ছেন কেমন?
এখনতো সব কাজ অনলাইন বেইজড হয়ে গেছে, টেলিভিশনকে কেউতো আর পাত্তা দিতে চায় না ওভাবে। কিন্তু আমার কথা যদি চিন্তা করি তাহলে টেলিভিশনই আমাকে পরিচিত দিয়েছে বা দর্শকদের ভালোবাসা পেয়েছি। আমি কখনও ভিউয়ের পেছনে দৌড়াই নাই। কিন্তু আমি সবসময়ই ভালো কিছু করতে চেয়েছি। সাম হাউ আমার লাকটাও ফেবার করেছে। সেটাই করেছি সেটাই হয়তোবা ভালো লেগেছে।

খানিক থেমে…
আর হ্যাঁ, আমি তোলপাড়ের সঙ্গে প্রথম থেকেই আছি। মুসাফির রনি (পরিচালক) খুব কাছের ভাই আমার। ও বললো এমন একটা ক্যারেক্টার। বরিশালের ভাষায় কথা বলতে হবে। এই গল্পে নায়ক-নায়িকার কোনো ফিল নাই। কিন্তু তোমার ক্যারেক্টারের একটা ফিল আছে। তো আমার মনে হয়েছে ঠিক আছে, বরিশালের আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলার আমার অভ্যাস আছে। আমি করতে পারবো। দেখি চলে কিনা। আসলে সব কিছুরই তো একটা ক্লাস আছে, ডিরেক্টর, গল্প, অভিনয়ের। কিন্তু আমি সব অভিনয় তো মন দিয়েই করি। ডিরেক্টর বা গল্প যাই হোক। এমন না যে খয়রাতিভাবে শুটিং করে দিয়ে চলে আসি। আমি এমন না, মন থেকে অভিনয় করি।

আর কোন কোন কাজ রয়েছে?
মাছরাঙা টেলিভিশন চ্যানেলে বাকের খনি ধারাবাহিকটি চলছে। এছাড়া আরটিভিতে চিটিং মাস্টার ধারাবাহিকটি দেখানো হচ্ছে।

ওয়েব সিরিজের কাজ নিয়ে জানতে চাই?
আসলে আমি ওই ভিউ ফিল কখনও দিতে পারি নাই। তাই হয়তোবা ওয়েব সিরিজ করা হয়নি। আমি জানি না, হয়তোবা এটা আমারই ব্যর্থতা। তবে ভালো ভালো ক্লাসের পরিচালকরা ওয়েব সিরিজ নির্মাণ করছেন। কিন্তু সাম হাউ আমি এখনও পর্যন্ত কাজ করার সুযোগ পাইনি। তবে যদি আমি ডিজার্ভ করি তাহলে হয়তোবা ভবিষ্যতে কাজ করতে পারবো। যদি আমি পাই তাহলে আমি অনুভূতি দিয়েই কাজ করেতে চাই। অভিনয়টিই করতে চাই ভালোভাবে।

আপনার কী মনে হয় না বিশ্বের অন্য দেশ তো বটেই পাশের টালিউডের চেয়েও এদেশের ওয়েব সিরিজ পিছিয়ে?
দেখুন, যদি আমি চিন্তা করি তাহলে আমি কেন কলকাতার সঙ্গে চিন্তা করবো। আমরা তাদের চেয়ে ভালো কিছু করার চিন্তা করবো।

আপনাকে দীর্ঘদিন সিনেমায় দেখা যায় না।
ওই যে গোর রিলিজ হওয়ার কথা ছিলো। গাজী রাকায়েত-এর। কিন্তু করোনার কারণে তো সব পিছিয়ে গেলো। এটাই মনে হয় বাংলাদেশে প্রথম ইংরেজি ভাষার চলচ্চিত্র। এটা নিয়ে অনেক এক্সসাইটেড ছিলাম। কিন্তু করোনার কারণে সমস্যাটা হলো।

নিজের নামে ইউটিউবে চ্যানেল খোলার কারণ?
আমার ইউটিউব চ্যানেলটি একটা বড় স্বপ্ন নিয়েই খুলেছি। ফাতরামি করার জন্য করিনি। লাখ লাখ ভিউ, ফানি ভিডিও করতে চাই না। এখন ট্রেন্ড চলছে এমন সব ভিডিও নিয়ে আমি কাজ করতে চাই না। আমি ওই ফিলে কিছু করতে চাই, গুড। গুড এর আপার ক্লাস গুড,বেটার, বেস্ট। সো আমি বেস্ট নিয়ে কেন কাজ করবো না। আমি বেস্ট কিছু নিয়ে ইউটিউব চ্যানেলে কাজ করতে চাই।

তার মানে আপনাকে প্রযোজক-পরিচালক হিসেবে দেখতে পাবো সামনে?
এটা তো অনেক আগে থেকেই করতে চেয়েছি। আমার চ্যানেলে ভিন্ন ধরনের কাজই করতে চাই। মনে রাখার মতো কাজ করতে চাই।

বিয়ের বাজনা কবে বাজবে?
আসলে বিয়ের ব্যাপারে আমার আপাতত তেমন কোনো চিন্তা নেই। আমি এখন চাই ভালো কিছু কাজ করতে। বিয়ে ছাড়াও জগতে অনেক কিছুই করার আছে। আপাতত কাজের মধ্যেই ডুবে থাকতে চাই। সূত্র: আরটিভি অনলাইন।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: