আমি ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই: ক্লোজআপ তারকা সাজুর মা

আমি ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই: ক্লোজআপ তারকা সাজুর মা

অনিল চন্দ্র রায়, কুড়িগ্রাম থেকে: ক্লোজআপ ওয়ান তারকা কণ্ঠশিল্পী সাজু আহমেদের হামলার শিকার হয়ে গুরুতর আহত মা রানীজান বেগম তার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। ‘হত্যার উদ্দেশে হামলা ও গুরুতর জখম’-এই অভিযোগ এনে তিনি কুড়িগ্রামের উলিপুর থানায় একটি এজাহার করেছেন।

গতকাল সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) এজাহারটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে বলে প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা এস আই আনিসুর রহমান। তিনি জানান, ‘অভিযুক্ত শিল্পী সাজুর বিরুদ্ধে তার মায়ের অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাটি প্রাথমিকভাবে তদন্ত করা হয়। এরপর মামলা রেকর্ড করে অভিযুক্ত সাজুকে গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে। বর্তমানে সে পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারে চেষ্টা অব্যাহত আছে বলে তিনি জানিয়েছেন

শিল্পী সাজু আহমেদ ২০০৮ সালে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এনটিভি আয়োজিত রিয়ালিটি শো ক্লোজআপ ওয়ান তারকার দ্বিতীয় রানারআপ নির্বাচিত হন। তার বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর উপজেলার পান্ডুল ইউনিয়নের তেলিপাড়ার মৃত আজগর আলী ও রানীজান বেগমের ছোট ছেলে সাজু। এদিকে ছেলে হামলায় আহত হয়ে মাথায় জখম নিয়ে চতুর্থ দিনের মতো কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ভুক্তভোগী রানীজান বেগম।

তার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে অনেকটা ভালো বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. পুলক কুমার সরকার। এদিকে ছেলের বিরুদ্ধে মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে অসুস্থ রানীজান বেগম জানান, ‘আমি সাজুর কঠিন শাস্তি চাই, ওর যেন জেল হয়। এমন ছেলের দরকার নেই যে ছেলে মাকে পিঠাই।

নিজের ছেলের এমন কর্মকে ভুল মনে করেন কিনা, এমন প্রশ্নে রানীজান বেগম বলেন,‘ একবার হলে ভুল মনে করতাম। কিন্তু সে বারবার আমাকে অপমান করে আসছে। আমার ছোট ছেলে এবং শিল্পী বলে এতোদিন কোনও অভিযোগ করিনি। আমি ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। ওর কঠিন শাস্তি দেখে যেন ওর মতো অন্য ছেলেরাও সতর্ক হয়ে যায়।’ নিজের বিরুদ্ধে মায়ের ওপর হামলার অভিযোগ ও একই অভিযোগে মা বাদী হয়ে মা থানায় মামলা করলেও নিজের ফেসবুক আইডিতে অসুস্থ্য মায়ের জন্য দোয়া চেয়ে একটি পোস্ট দিয়েছেন অভিযুক্ত সাজু আহমেদ।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে দেওয়া পোস্টে সাজু লিখেন, ‘ আমার মা এর জন্য সবাই দোয়া করবেন প্লিজ’। একই সাথে সংশ্লিষ্ট ঘটনাগুলোকে তার বিরুদ্ধে ষঢ়যন্ত্র বলে দাবি করেছেন সাজু। এর আগে তিনি দাবি করেছেন, ‘আমি জমির অংশ দাবি করেছি বলে আমার মা ও বড় বোন আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন। আমি মায়ের ওপর আঘাত করিনি। বোনের ছোড়া ঢিল আমার শরীরে না লেগে মায়ের মাথায় লেগেছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তদন্ত করলে প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসবে।’ তবে মামলার বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে সোমবার রাতে অভিযুক্ত তারকা সাজু আহমেদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। উলিপুর থানার ওসি মো. ইমতিয়াজ কবির জানান, প্রাথমিকভাবে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। আমরা তাকে (শিল্পী সাজুকে) গ্রেফতারে চেষ্টা চালাচ্ছি।

এর আগে গত শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) জমিজমা সংক্রান্ত পারিবারিক কলহের জেরে ‘সাজুর ছোড়া ঢিলে’ মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হলে কপাল কেটে যায় তার মা রানীজান বেগমের। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। তার কপালে ৮টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানান চিকিৎসক। তিনি বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শেয়ার করুন