আমার ব্যক্তিগত ভিডিও ফাঁস করার অধিকার কারও নেই: পরীমনি

আমার ব্যক্তিগত ভিডিও ফাঁস করার অধিকার কারও নেই: পরীমনি

মাদক মামলায় গ্রেতারের ২৭ দিন পর মুক্তি পেয়েছেন আলোচিত চিত্র্র্রনায়িকা পরীমনি। কারাগগার থেকে মুক্ত হওয়ার পর বর্তমানে নিজ বাসাতেই রয়েছেন এই নাায়িকা। তবে জামিনে মুক্তি পেয়ে বাসায় ফিরেও এই নায়িকা পেয়েছেন দুঃসংবাদ।

বাসায় ফিরে শুনেছেন বাড়িওয়ালা বাসা ছাড়ার নোটিশ দিয়েছেন। বিষয়টি উল্লেখ করে পরীমনি বলেন, ‘বাসায় এসেই জানতে পারলাম বাসা ছাড়ার নোটিশ দিয়েছে। কিন্তু আসলে কিছুই করার নেই। এ বাড়িতে আরো অনেকে থাকেন। তাদের কথাও ভাবতে হবে। তবে এই মুহূর্তে কোথায় যাবো ভেবে পাচ্ছি না। জীবনটা অতিষ্ঠ করে ছেড়ে দিয়েছে!’

এদিকে একটি সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিজের ব্যক্তিগত ভিডিও ভাইরাল হওয়ার বিষয়টি নিয়েও কথা বলেছেন পরী। ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) গোলাম সাকলায়েন শিথিল ও পরীমনির একটি জন্মদিন পালনের ভিডিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিও নিয়েই মুখ খুলেছেন পরী। নিজের ব্যক্তিগত গোপন তথ্য প্রকাশ হওয়া নিয়ে বিরক্ত এই নায়িকা। বিশেষ করে রিমান্ডে তার দেয়া তথ্য প্রকাশ হওয়ায় বিব্রত তিনি।

পরী বলেন, যেসব ভিডিও বাইরে এসেছে সেগুলো ওই ফোনেই ছিল। তিনি বলেন, আমার ব্যক্তিগত ভিডিও ফাঁস করার অধিকার কারও নেই। তাও আমার ফোন থেকে। আমার বাসার সিসিটিভি ফুটেজও নিয়ে যায়। অনেক তো হলো। সবকিছুই তো একটা জায়গায় শান্ত হওয়া উচিত। আমার থাকার জায়গাটা পর্যন্ত ছাড়তে না। আমি টায়ার্ড হয়ে যাই মাঝে মাঝে। কতক্ষণ পারা যায় এভাবে?

নগর মাস্তান ছবির এই নায়িকা আরও জানান, আমার ব্যক্তিগত ভিডিও লিক করার রাইটস কারও নেই। তাও আমার ফোন থেকে। আমার বাসার সিসিটিভি ফুটেজও নিয়ে যায়। অনেক তো হলো। সবকিছুই তো একটা জায়গায় শান্ত হওয়া উচিত। আমার থাকার জায়গাটা পর্যন্ত ছাড়তে না। আমি টায়ার্ড হয়ে যাই মাঝে মাঝে। কতক্ষণ পারা যায় এভাবে?

গ্রেফতারের পরের ২৭ দিন সম্পর্কে জানতে চাইলে পরী জানান, ‘নিয়মিত জীবন-যাপন থেকে হঠাৎ কী যে হয়ে গেল কিছুই বুঝতে পারলাম না। কোনো ফিলিংস নেই!’ এরপর নিজ থেকেই আশ্বাস দিলেন জেলজীবনের ২৭ দিনের গল্প ভক্তদের সঙ্গে শেয়ার করবেন। তবে আজ নয়, অন্য এক দিন।

শেয়ার করুন