অবশেষে শুরু হল টানা ২১ দিনের লকডাউন

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের বিস্তার দেশে দিনকে দিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। এমন অবস্থায় কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে সরকার। তথ্য মতে, দেশের বিভিন্ন এলাকা বা ওয়ার্ডকে ‘রেড, ইয়েলো ও গ্রিন জোন’ হিসেবে চিহ্নিত করে লকডাউন প্রক্রিয়া বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।লকডাউনএরইমধ্যে ঢাকাসহ বেশ কিছু এলাকা ‘রেড জোন’ করে লকডাউন করে হয়েছে। এবার বন্দর নগরী চট্টগ্রামের প্রথম

‘রেড জোন’ হিসেবে ১০ নম্বর উত্তর কাট্টলি ওয়ার্ডে মঙ্গলবার রাত ১২টার পর থেকে লকডাউন শুরু হয়েছে।ওই এলাকার ২০টি প্রবেশপথ চিহ্নিত করে তা বন্ধ করে দিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।লকডাউন শুরুর আগে রাত ১১টায় সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ড এলাকা পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি ওয়ার্ড কার্যালয়ের কন্ট্রোল রুমে লকডাউন কর্মসূচির সার্বিক বিষয় নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে

আলোচনা করেন।প্রাথমিকভাবে ২১ দিনের জন্য এই লকডাউন কার্যকর করা হবে বলে জানিয়েছে সিটি করপোরেশন। আর এই এলাকায় সেনা টহল থাকবে বলে জানিয়েছে আইএসপিআর।বন্ধ করে দেয়া প্রবেশপথগুলোর মধ্যে- কর্নেল টোল রোড, ঈশান মহাজন রোড, মোস্তফা হাকিম কলেজ রোড, সাগরিকা বিটেক রোড, কৈবল্যধাম রোড, নিউ মনছুরাবাদ রোড, সিডিএ আবাসিক রোড, সাগরিকা আলিফ রোড উল্লেখযোগ্য।

লকডাউন চলাকালীন ‘রেড জোন’ ঘোষিত এলাকায় প্রবেশ ও বাইরে বের হওয়া সম্পূর্ণ নিষেধ। তবে এ সময়ে স্বাস্থ্যকর্মীসহ জরুরি সেবায় যারা নিয়োজিত তাদের বের হতে দেয়া হবে। প্রধান সড়কে দূর পাল্লার গাড়িতে কোনো প্রকার যাত্রী ওঠা-নামা করতে পারবে না। তবে রাত ১২ টার পর পণ্যবাহী গাড়ি চলাচল উন্মুক্ত থাকবে।একই সঙ্গে সাধারণ মানুষকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দিতে খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম। এলাকার মানুষের সার্বিক সহায়তার জন্য মহল্লা ভিত্তিক সেচ্ছাসেবক টিমও কাজ করবে।কন্ট্রোল রুমের নম্বরগুলো হলো- ০৩১-৪৩১৫১৩৬৮, ০৩১-৪৩১৫১৩৬৯, ০৩১-৪৩১৫১৩৭০, ০৩১-৪৩১৫১৩৭১, ০৩১-৪৩১৫১৩৭২, ০১৮১৯-০৫৬৮৪৪ এবং ০১৮১১-৮৮৭০৮৪।লকডাউন কার্যকর থাকাকালীন স্থানীয় বাসিন্দারা যেকোনো সমস্যা এসব নম্বরে ফোন করে জানাতে পারবেন।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এই বিভাগের আরো খবর
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

%d bloggers like this: